• রবিবার, ২২ মে ২০২২, ০৬:২১ পূর্বাহ্ন

৬ সপ্তাহের মধ্যে তিন জেলার অবৈধ ইটভাটা ধ্বংসের নির্দেশ হাইকোর্টের

আমার কাগজ ডেস্ক: / ৩৪ শেয়ার
প্রকাশিত : সোমবার, ১৪ মার্চ, ২০২২

বান্দরবান, রাঙামাটি ও খাগড়াছড়ি—এ তিন পার্বত্য জেলায় থাকা অবৈধ ইটভাটাগুলো ছয় সপ্তাহের মধ্যে ধ্বংস করে আদালতে প্রতিবেদন জমা দেওয়ার নির্দেশ দিয়েছেন হাইকোর্ট। বিচারপতি জে বি এম হাসান ও বিচারপতি ফাতেমা নজীবের সমন্বয়ে গঠিত হাইকোর্ট বেঞ্চ আজ সোমবার এ আদেশ দেন। তিন জেলা প্রশাসকের দাখিল করা প্রতিবেদনের তথ্যমতে, ৩ পার্বত্য জেলায় ১৩০টি অবৈধ ইটভাটা রয়েছে।

এক রিট আবেদনের পরিপ্রেক্ষিতে গত ২৩ ফেব্রুয়ারি হাইকোর্টে প্রতিবেদন দাখিল করে রাষ্ট্রপক্ষ। এতে বলা হয়, ৩ পার্বত্য জেলার ২০টি উপজেলায় থাকা ৬৪টি অবৈধ ইটভাটার কার্যক্রম বন্ধ করা হয়েছে। সেদিন আদালত ৯ মার্চের মধ্যে পূর্ণাঙ্গ তালিকা দাখিল করার নির্দেশ দেন। এর ধারাবাহিকতায় রাষ্ট্রপক্ষ তিন জেলা প্রশাসকের তালিকা আদালতে দাখিল করে।

আজ আদালতে রাষ্ট্রপক্ষে শুনানি করেন ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল তুষার কান্তি রায়। রিটের পক্ষে শুনানি করেন জ্যেষ্ঠ আইনজীবী মনজিল মোরসেদ।

বিজ্ঞাপন

পরে মনজিল মোরসেদ বলেন, ইটভাটা নিয়ন্ত্রন আইনের ১৪ ও ১৯ ধারা অনুসারে ৩ কার্যদিবসের মধ্যে অবৈধ ইটভাটাগুলোর বিরুদ্ধে আইনত ব্যবস্থা নিতে নির্দেশ দিয়েছেন আদালত। পাশাপাশি অবৈধ ইটভাটাগুলো ধ্বংস করে ছয় সপ্তাহের মধ্যে তিন জেলার জেলা প্রশাসককে আদালতে প্রতিবেদন দিতেও বলা হয়েছে।

এর আগে মানবাধিকার ও পরিবেশবাদী সংগঠন হিউম্যান রাইটস অ্যান্ড পিস ফর বাংলাদেশ (এইচআরপিবি) ওই রিট করে। রিটের প্রাথমিক শুনানি নিয়ে গত ২৫ জানুয়ারি হাইকোর্টের একই বেঞ্চ রুলসহ আদেশ দেন।

ওই জেলাগুলোতে থাকা সব অবৈধ ইটভাটার কার্যক্রম সাত দিনের মধ্যে বন্ধের ব্যবস্থা নিতে তিন জেলা প্রশাসকসহ সংশ্লিষ্ট বিবাদীদের প্রতি নির্দেশ দেওয়া হয়। নির্দেশনা বাস্তবায়নের বিষয়ে প্রতিবেদন দিতে বলা হয়। এ ছাড়া সেখানকার লাইসেন্সবিহীন সব ইটভাটার তালিকা ছয় সপ্তাহের মধ্যে আদালতে দাখিল করতেও নির্দেশ দেওয়া হয়। এর ধারাবাহিকতায় বিষয়টি আদালতে ওঠে।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ সম্পর্কিত আরো সংবাদ