• মঙ্গলবার, ২৪ মে ২০২২, ১১:৫৪ অপরাহ্ন

১৩ ছাত্রীকে ধর্ষণের দায়ে শিক্ষককে মৃত্যুদণ্ড দিয়েছে ইন্দোনেশিয়ার আদালত

আন্তর্জাতিক ডেস্ক: / ৩১ শেয়ার
প্রকাশিত : সোমবার, ৪ এপ্রিল, ২০২২

আন্তর্জাতিক ডেস্ক:

ইন্দোনেশিয়ার একটি ইসলামিক বিদ্যালয়ের ১৩ ছাত্রীকে ধর্ষণের অভিযোগে প্রাথমিকভাবে যাবজ্জীবন কারাদণ্ড দেওয়ার পর সোমবার একজন শিক্ষককে মৃত্যুদণ্ড দিয়েছে দেশটির আদালত। অদালত ফেব্রুয়ারিতে অভিযুক্তকে যাবজ্জীবন কারা দণ্ড দেওয়ার পর প্রসিকিউটররা মৃত্যুদণ্ড চেয়ে আপিল দায়ের করেছিলেন।

মৃত্যুদণ্ডের ব্যাপারে সোমবার বান্দুং হাইকোর্টের ওয়েবসাইটে পোস্ট করা বিচারকের বিবৃতিতে বলা হয়, আমরা এতদ্বারা আসামীকে মৃত্যুদণ্ড প্রদান করে শাস্তি ঘোষণা করছি।

অভিযুক্ত শিক্ষক হেরি উইরাওয়ানের ঘটনা ইন্দোনেশিয়ায় তোলপাড় সৃষ্টি করেছে। ঘটনার পর ধর্মীয় বোর্ডিং স্কুলের শিশুদের যৌন সহিংসতা থেকে রক্ষা করার প্রয়োজনীয়তার ওপর আলোকপাত করেছে দেশটি।

আদালত থেকে সম্পূর্ণ রায় দেখার প্রয়োজনে আপিল করা হবে কিনা এ বিষয়ে মন্তব্য করতে অস্বীকৃতি জানান অভিযুক্ত হেরির আইনজীবী ইরা মাম্বো। তবে স্থানীয় প্রসিকিউটর অফিসের মুখপাত্র বলেন, তারা মন্তব্য করার আগে চূড়ান্ত রায় পাওয়ার জন্য অপেক্ষা করবে।

২০১৬-২০২১ সালের মধ্যে হেরি ১২ থেকে ১৬ বছর বয়সী ১৩ ছাত্রীকে ধর্ষণ করে যার মধ্যে আটজন গর্ভবতী হয়। দেশটির শিশু সুরক্ষা মন্ত্রীসহ ইন্দোনেশিয়ার কর্মকর্তারা মৃত্যুদণ্ডের আহ্বানকে সমর্থন করলেও দেশটির মানবাধিকার কমিশন মৃত্যুদণ্ডের বিরোধিতা করেছিল। তাদের মতে এই শাস্তি উপযুক্ত নয়।

বিশ্বের বৃহত্তম মুসলিম সংখ্যা গরিষ্ঠ দেশ ইন্দোনেশিয়ার হাজার হাজার দরিদ্র পরিবারের শিশুদের শিক্ষালাভের জন্য এ ধরনের ইসলামিক বোর্ডিং স্কুলগুলোই একমাত্র উপায়।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ সম্পর্কিত আরো সংবাদ