• শুক্রবার, ২১ জানুয়ারী ২০২২, ১১:২৫ অপরাহ্ন

সুগন্ধা ট্রাজেডি: এবার নিখোঁজ যাত্রীর স্বজনের মামলা

আমার কাগজ প্রতিবেদকঃ / ২৯ শেয়ার
প্রকাশিত : মঙ্গলবার, ২৮ ডিসেম্বর, ২০২১

ঝালকাঠির সুগন্ধা নদীতে এমভি অভিযান-১০ লঞ্চে অগ্নিকাণ্ডের ঘটনায় আরও একটি মামলা হয়েছে।

সোমবার রাতে ঝালকাঠি সদর থানায় হত্যা মামলাটি করেন মনির হোসেন নামে এক ব্যক্তি। যিনি লঞ্চটিতে থাকা নিখোঁজ চার যাত্রীর স্বজন।

মামলাটিতে এমভি অভিযান-১০ লঞ্চের মালিক হামজালাল শেখসহ আটজনের নাম উল্লেখ করে অজ্ঞাত আরও ২০ জনকে আসামি করা হয়েছে।

মামলার বাদী মনির হোসেন ঢাকার ডেমরা থানার বক্সনগর এলাকার বাসিন্দা। তাঁর বোন তাসলিমা আক্তার, ভাগনি সামাইয়া আক্তার, সুমনা আক্তার তানিসা ও ভাইয়ের ছেলে জুনায়েদ ইসলাম পুড়ে যাওয়া লঞ্চের মধ্যে ছিল। তাঁরা সবাই নিখোঁজ রয়েছে।

ভয়াবহ লঞ্চ দুর্ঘটনার ওই ঘটনায় এর আগে ২৫ ডিসেম্বর একই থানায় একটি অপমৃত্যু মামলা করেন সদর উপজেলার পোনাবালিয়া ইউনিয়নের গ্রামপুলিশ মো. জাহাঙ্গীর হোসেন।

এছাড়া রাজধানীর মতিঝিলের নৌ আদালতে আরেকটি মামলা হয়। সে মামলায় লঞ্চের মালিক হামজালালকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে।

এদিকে লঞ্চে অগ্নিকাণ্ডের ঘটনায় আজ পঞ্চম দিনের মতো উদ্ধার অভিযান চলছে। আগুনের সময় প্রাণ বাঁচাতে নদীতে ঝাঁপিয়ে পড়াদের খুঁজতে ফায়ার সার্ভিস অ্যান্ড সিভিল ডিফেন্স কর্মীরা সকাল থেকে সুগন্ধা ও বিষখালী নদীর বিভিন্ন পয়েন্টে উদ্ধার তৎপরতা চালাচ্ছে।

পঞ্চম দিনে একজনের মরদেহ উদ্ধার করা হয়েছে। সকালে সুগন্ধা নদী থেকে আনুমানিক ৩২ বছর বয়সী ওই যুবকের মরদেহটি উদ্ধার করা হয়। মরদেহের মুখে আগুনে পোড়ার চিহ্ন রয়েছে। ময়নাতদন্তের জন্য লাশটি ঝালকাঠি সদর হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়েছে।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ সম্পর্কিত আরো সংবাদ