• সোমবার, ২৫ অক্টোবর ২০২১, ০৭:২৬ অপরাহ্ন

সাফ চ্যাম্পিয়নশিপ: নেপালকে হারালেই ফাইনালে বাংলাদেশ

র্স্পোটস ডেস্কঃ / ৩৭ শেয়ার
প্রকাশিত : মঙ্গলবার, ১২ অক্টোবর, ২০২১

 

সাফ চ্যাম্পিয়নশিপে ২০০৩ সালে শিরোপা জয়ের পর লাল-সবুজ জার্সিধারীরা ফাইনাল খেলেছেন মাত্র একবার (২০০৫)। ২০১২ সালের পর প্রতিবার গ্রুপপর্বেই বিদায় নিয়েছে বাংলাদেশ ফুটবল দল। সবশেষ সেমিফাইনাল খেলেছেন তাও প্রায় এক যুগ আগে। অতীতটা সুখকর না হলেও চলতি সাফে শিরোপার স্বপ্নই দেখছেন জামাল-জিকোদের বাংলাদেশ।

চলতি সাফে গ্রুপ পর্বে শ্রীলংকাকে হারানোর পর ভারতের বিপক্ষে ড্র করে স্বপ্নের পথেই হাটছিলেন অস্কার ব্রুজেনের শিষ্যরা। এরপর মালদ্বীপের কাছে ২-০ গোল ব্যবধানে হারলে সেই আশায় ছেদ পরে। তবে এখনই শেষ হয়ে যাচ্ছে না জামাল-জিকোদের স্বপ্ন। আগামীকাল নেপালের বিপক্ষে জয় তুলে নিলেই ফাইনালে খেলবে বাংলাদেশ।

বুধবার মালদ্বীপের রাজধানী মালের রাশমি ধান্দু স্টেডিয়ামে বিকাল ৫টায় মুখোমুখি হবে দুই দল। অন্য ম্যাচে রাত দশটায় মালদ্বীপের মুখোমুখি হবে ভারত।

তিন ম্যাচে ৬ পয়েন্ট নিয়ে দ্বিতীয় স্থানে আছে নেপাল। ৪ পয়েন্ট নিয়ে চতুর্থ স্থানে বাংলাদেশ। তিন ম্যাচে ৬ পয়েন্ট নিয়ে শীর্ষে আছে স্বাগতিক মালদ্বীপ। তিন ম্যাচে ১ জয় আর দুই ড্রতে ৫ পয়েন্ট নিয়ে তিনে ভারত। শ্রীলংকার ১ পয়েন্ট নিয়ে আছেন তলানিতে।

সাফ চ্যাম্পিয়নশিপে তিন বারের দেখায় একবারও জিততে পারেনি বাংলাদেশ। এবার নিশ্চয়ই হারের প্রতিশোধ নিবে জামাল-জিকোরা।

টেবিলে এমন অবস্থায় শ্রীলংকা বাদে বাকি চার দলেরই রয়েছে ফাইনাল খেলার। শেষ রাউন্ডে মালদ্বীপ ও নেপাল ড্র করলেই চলে যাবে সাফ ফাইনালে। তবে হারলে বিদায় নিতে হবে, অন্য ম্যাচে ফল যাই হোক। তিনে থাকা ভারত ও চারে থাকা বাংলাদেশের জয়ের কোনো বিকল্প নেই। সাফে সবশেষ তিনবারের মুখোমুখি দেখায় সবগুলোতেই হেরেছে বাংলাদেশ। এবার বাংলাদেশের সামনে ফাইনালে ওঠার পাশাপাশি রয়েছে প্রতিশোধ নেওয়ার সুযোগ।

সাফ চ্যাম্পিয়নশিপে প্রথমবারের মতো ফাইনালে উঠতে নেপালের দরকার ড্র। অপরদিকে জয় ছাড়া বিকল্প নেই বাংলাদেশের। এমন পরিস্থিতিতে নিজেদের ওপর চাপ দেখছেন না মিডফিল্ডার রাকিব হোসেন ও টিম ম্যানেজার সত্যজিৎ দাস রুপু। তাদের দাবি, বাংলাদেশ নয়, বরং চাপে আছে নেপালই!

বাফুফের পাঠানো ভিডিও বার্তায় রাকিব বলেছেন, ‘এ ম্যাচে আমরা চাপে নেই। ওরাই (নেপাল) চাপে থাকবে। ওদের যেহেতু ৬ পয়েন্ট, আমাদের ৪ পয়েন্ট, আমরা খেলব জয়ের জন্য। এটা (খেলার কৌশল) এখনই বলা যাবে না। তবে সবাই চেষ্টা করছি অ্যাটাকিং খেলার।’

টিম ম্যানেজার সত্যজিৎ দাস রুপু বলেছেন, ‘প্রাথমিক লক্ষ্য অর্জনের জন্য নেপালকে হারাতে হবে। সে লক্ষ্য নিয়ে কোচ পরিকল্পনা সাজিয়েছেন। কাজ করছেন। আমি মনে করি ৯০ মিনিটের খেলা এবং আমাদের জন্য সুবর্ণ সুযোগ। ছেলেরা প্রস্তুত আছে। দেশের মানুষ যে আশা করে আছে, আমি আশা করি, ছেলেরা তাদের হতাশ করবে না।’


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ সম্পর্কিত আরো সংবাদ

পুরাতন সব সংবাদ

শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
 
১০১১১২১৩১৪১৫
১৬১৭১৮১৯২০২১২২
২৩২৪২৫২৬২৭২৮২৯
৩০৩১  
%d bloggers like this: