• শনিবার, ২২ জানুয়ারী ২০২২, ১১:৩৯ অপরাহ্ন

সাকিব-তামিমদের চেয়ে ভিন্ন পথে হেঁটেও সফল শান্ত-জয়রা

স্পোর্টস ডেস্ক: / ২১ শেয়ার
প্রকাশিত : রবিবার, ২ জানুয়ারী, ২০২২

নিউজিল্যান্ড সফরে প্রথম টেস্টের দ্বিতীয় দিনটি পুরোপুরি নিজেদের করে নিয়েছে বাংলাদেশ দল। প্রথমে বল হাতে ৫ উইকেট, পরে ব্যাট হাতে মাত্র ২ উইকেট হারিয়ে করেছে ১৭৫ রান। স্বাগতিকদের চেয়ে আর ১৫৩ রানে পিছিয়ে বাংলাদেশ, হাতে আছে ৮টি উইকেট।

বাংলাদেশের এই সোনালি দিনের মূল কারিগর দুই তরুণ ব্যাটার মাহমুদুল হাসান জয় ও নাজমুল হোসেন শান্ত। নতুন বছরে বাংলাদেশের প্রথম ফিফটিতে নাজমুল শান্ত করেছেন ৬৪ রান। অন্যদিকে দিন শেষে ২১১ বল খেলে ৭০ রানে অপরাজিত রয়েছেন মাহমুদুল জয়।

সাম্প্রতিক সময়ে নিউজিল্যান্ডে খেলতে গেলে সবচেয়ে বড় ভয়ের কারণ থাকে নেইল ওয়াগনারের একের পর এক বুক বরাবর আসা বাউন্সার। সাকিব আল হাসান, তামিম ইকবাল, মুশফিকুর রহিম, সৌম্য সরকাররা তার বিরুদ্ধে পাল্টা আক্রমণের পথকেই বেছে নিয়েছিলেন আগের সফরগুলোতে।

তবে শান্ত-জয়রা হেঁটেছেন ভিন্ন পথে, পেয়েছেন সাফল্যও। ওয়াগনারের বাউন্সারে আক্রমণাত্মক খেলার বদলে সোজা ব্যাটে ডিফেন্স করে গেছেন প্রায় পুরোটা সময়। বিশেষ করে শান্ত সাজঘরে ফেরার পর শেষ বিকেলে ওয়াগনারের ১৮ বল খেলে ১ রান করেছেন জয়।

দুই তরুণ ব্যাটারের ব্যাটিংয়ে নিউজিল্যান্ডের পেসার ওয়াগনারও পেয়েছেন সাকিব-তামিমদের চেয়ে ভিন্নভাবে খেলার ছাপ। দ্বিতীয় দিনের খেলা শেষে শান্ত-জয়দের প্রশংসায় ভাসিয়েছেন কিউই বাঁহাতি পেসার।

তিনি বলেছেন, ‘প্রতি সফরেই বাংলাদেশ দল শক্তি প্রতিপক্ষ হিসেবে আসে এখানে। তারা সবসময়ই আমাদের এখানে ভালো খেলেছে। সাকিব-তামিমরা ভিন্ন ধরনের ক্রিকেট খেলে। তারা সাধারণত আক্রমণাত্মক ব্যাটিং করে, আরও বেশি শট খেলতে। যা আমাদের জন্য উইকেটেরও সম্ভাবনা তৈরি করে। তারা কোয়ালিটি ক্রিকেটার এবং লম্বা সময় ধরে খেলছে।’

ওয়াগনার আরও যোগ করেন, ‘আজকে তরুণ ব্যাটাররা অসাধারণ খেলেছে। আমার মতে, তারা চরম ধৈর্য্যের পরীক্ষা দিয়েছে। আমাদেরকে খুব একটা সুযোগ দেয়নি, উইকেটে আটকে থেকেছে। উইকেটে আঠার মতো লেগে থাকার প্রস্তুতি নিয়েই এসেছিল তারা। অনেক বেশি বল ছেড়েও দিয়েছে তারা।’

‘এটি আমাদের মধ্যে অনেক বেশি প্রশ্নের জন্ম দিয়েছে এবং উইকেট নেওয়ার দিকে ছুটতে বাধ্য করেছে। যা তাদেরকে রান করার সুযোগ তৈরি করে দিয়েছে। আমার মতে, তারা দুর্দান্ত খেলেছে। পূর্ণ কৃতিত্ব প্রাপ্য। যখনই রান করার বল পেয়েছে, তারা রান করে নিয়েছে। তারা সুন্দর ডিফেন্স করেছে এবং ভালোভাবে বল ছেড়েছে।’

আজকের দিনটি ভালো না কাটলেও ঘুরে দাঁড়াতে প্রত্যয়ী ওয়াগনার, ‘এটি আসলে টেস্ট ক্রিকেটের একটি কঠিন দিন ছিল। আমার মতে, আমরাও শক্ত লড়াই করেছি তবে দুই প্রান্ত থেকে সফল হতে পারিনি। এটিই টেস্ট ক্রিকেট। আগামীকাল আমাদের ঘুরে দাঁড়ানোর সুযোগ। এটি কাজে লাগিয়ে দ্রুত উইকেট নিতে হবে।’


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ সম্পর্কিত আরো সংবাদ