• সোমবার, ২৫ অক্টোবর ২০২১, ০৮:৫০ অপরাহ্ন

লক্ষ্মীপুরে শিশু নুশরাত ধর্ষণ ও হত্যা মামলায় একজনের ফাঁসি

প্রতিবেদকের নাম / ১৪২ শেয়ার
প্রকাশিত : মঙ্গলবার, ১২ অক্টোবর, ২০২১

লক্ষ্মীপুর প্রতিনিধি:
লক্ষ্মীপুরে চাঞ্চল্যকর সাত বছরের শিশু নুশরাত জাহান নুশু ধর্ষণ ও হত্যা মামলায় শাহ আলম রুবেল নামের একজনকে ফাঁসির আদেশ দিয়েছেন আদালত।
মঙ্গলবার (১২ অক্টোবর) বেলা সাড়ে ১১টার দিকে লক্ষ্মীপুর নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনালের বিচারক (জেলা জজ) মোহাম্মদ সিরাজুদ্দৌলাহ কুতুবী জনাকীর্ণ আদালতে এ রায় ঘোষণা করেন। একইসঙ্গে দন্ডপ্রাপ্ত আসামীর ১ লক্ষ টাকা জরিমানা অনাদায়ে আরও চার বছর সশ্রম কারাদন্ডের আদেশ দেন আদালত।
একই মামলায় বোরহান উদ্দিন নামের অপর এক আসামীর বিরুদ্ধে অভিযোগ প্রমাণিত না হওয়ায় আদালত তাকে বেকসুর খালাস প্রদান করেন।
রায়ের বিষয়টি নিশ্চিত করেন রাষ্ট্রপক্ষের কৌশুলি স্পেশাল পিপি এডভোকেট মোঃ আবুল বাশার। এদিকে রায়ের পর আদালতপাড়ায় অপেক্ষমান মামলার বাদী শিশু নুশরাতের মা রেহানা বেগম ও চাচা আকবর হোসেন রায়ে সন্তোষ প্রকাশ করেন এবং রায় দ্রুত কার্যকরের দাবী জানান।
জানা যায়, ২০১৮ সালের ২৩ মার্চ (শুক্রবার) দুপুরে রামগঞ্জ উপজেলার নোয়াগাঁও ইউনিয়নের নোয়াগাঁও নজুমুদ্দিন বাড়ীর (কালু মেস্তুরি বাড়ীর) প্রবাসী এরশাদ হোসেনের মেয়ে ও স্থানীয় পশ্চিম নোয়াগাঁও ফয়েজুল রাসূল সুন্নিয়া মাদ্রাসার তৃতীয় শ্রেণির শিক্ষার্থী নুসরাত জাহান (৭) বাড়ী থেকে নিখোঁজ হয়। নিখোঁজের তিন দিন পর ২৬ মার্চ পার্শ্ববর্তী ভ্রহ্মপাড়া এলাকার খালে একটি বস্তা ভাসতে দেখে স্থানীয়রা পুলিশে খবর দেয়। পরে পুলিশ বস্তাটি উদ্ধার করে একটি শিশুর অর্ধ গলিত মরদেহ দেখতে পান।
খবর পেয়ে নুসরাতের মা রেহানা বেগম ও মামা জিয়াউল হক ঘটনাস্থলে গিয়ে নুসরাতের লাশ সনাক্ত করেন। এ সময় নিহতের পরিবার ও স্বজনদের আহাজারীতে ওই এলাকায় শোকের ছায়া নেমে আসে।
এ ঘটনায় সারাদেশে তোলপাড় সৃষ্টি হয়। বিভিন্ন স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন, স্কুল-কলেজের শিক্ষার্থীরা লক্ষ্মীপুর, ঢাকা ও চট্টগ্রাম প্রেস ক্লাবের সামনে শিশু নুশরাত ধর্ষণ ও হত্যাকান্ডের ঘটনার মূল আসামীকে গ্রেফতারের দাবিতে বিক্ষোভ ও মানববন্ধন কর্মসূচি পালন করে।
রামগঞ্জ থানার অফিসার ইনচার্জ মোঃ তোতা মিয়ার কৌশলী হস্তক্ষেপে নুশরাত হত্যাকান্ডের মূল হোতা একই বাড়ীর সর্ম্পর্কিত চাচা মোঃ রুবেলকে খুলনা থানা এলাকা থেকে গ্রেফতার করে। পরবর্তীতে রুবেলের স্বীকারোক্তিতে নুশরাত হত্যাকান্ডের রহস্য উম্মোচিত হয়।
রামগঞ্জ থানা পুলিশ হত্যাকান্ডের মুল হোতা রুবেল ও তার সহযোগী বোরহান উদ্দিনের বিরুদ্ধে লক্ষ্মীপুর নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আদালতে অভিযোগপত্র দাখিল করে। যা নারী শিশু মামলা নং- ৪০৮/১৮। আদালত ১৩ জন স্বাক্ষীর স্বাক্ষ্য গ্রহণ এবং দীর্ঘ শুনানি শেষে আজ এ রায় ঘোষণা করেন।
রাষ্ট্রপক্ষে মামলা পরিচালনা করেন নারী শিশু আদালতের স্পেশাল পিপি এডভোকেট মোঃ আবুল বাশার বাহার। আসামী পক্ষে ছিলেন এড. নুরুল আলম ও এড. এ কে এম আবুল কাশেম।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ সম্পর্কিত আরো সংবাদ

পুরাতন সব সংবাদ

শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
 
১০১১১২১৩১৪১৫
১৬১৭১৮১৯২০২১২২
২৩২৪২৫২৬২৭২৮২৯
৩০৩১  
%d bloggers like this: