• রবিবার, ২৯ মে ২০২২, ১২:২১ অপরাহ্ন

রামোসের প্রথম গোল, পিএসজির বড় জয়

প্রতিবেদকের নাম / ৬১ শেয়ার
প্রকাশিত : সোমবার, ২৪ জানুয়ারী, ২০২২

স্পোর্টস ডেস্ক:
সবশেষ লিওনেল মেসি খেলেছেন গত ২২ ডিসেম্বর। এর পর বড়দিনের ছুটিতে চলে গিয়েছিলেন দেশে। এর পর হলো করোনা। ভাইরাসমুক্ত হয়ে অবশেষে মাঠে ফিরলেন আর্জেন্টাইন মহাতারকা।

নতুন বছরে বর্ষসেরা এ ফুটবলারের ফেরার রাতে পিএসজিও পেয়েছে বড় জয়, দলের নির্ভরযোগ্য ডিফেন্ডার সার্জিও রামোসও পিএসজির জার্সিতে করেছেন অভিষেক গোল।

রোববার রাতে ফরাসি লিগ ওয়ানের ম্যাচটি ৪-০ গোলে জিতেছে পিএসজি। পিএসজির হয়ে গোল করেছেন মার্কো ভেরাত্তি, সার্জিও রামোস ও দানিলো পেরেইরা। বাকি গোলটি এসেছে প্রতিপক্ষের ফয়েসের করা আত্মঘাতী।

বিরতির পর মাঠে নামলেও গোলের দেখা পাননি লিওনেল মেসি। দলের আরেক সেরা তারকা কিলিয়ান এমবাপ্পেও গোলের দেখা পাননি।

ঘরের মাঠে বলদখলের লড়াইয়ে প্রতিপক্ষকে কোনো পাত্তাই দেয়নি পিএসজি। গোটা ম্যাচে ৬৯ শতাংশ বল নিজেদের পায়ে রাখে দলটি। গোলমুখে শট নেওয়ার ক্ষেত্রেও একচ্ছত্র দাপট ছিল স্বাগতিকদের। পুরো ম্যাচে গোলমুখে ২২টি শট নিয়ে ৮টি লক্ষ্যে রাখে পিএসজি। অন্যদিকে রেঁসে ৭ শটের লক্ষ্যে রাখে ৩টি।

পার্ক দেস প্রিন্সেসে প্রথম গোলের দেখা পেতে পিএসজিকে অপেক্ষা করতে হয় প্রথমার্ধের শেষ সময় পর্যন্ত। ম্যাচের ৪৪ মিনিটে মার্কো ভেরাত্তি গোল করে স্বাগতিকদের এগিয়ে দেন। ওই গোলেই লিড নিয়ে বিরতিতে যায় মৌরিচিও পচেত্তিনোর দল।

বিরতির পর আক্রমণের ধার বাড়ায় পিএসজি। ম্যাচের ৬২তম মিনিটে ফরাসিদের জার্সিতে প্রথমবার গোল করে ব্যবধান দ্বিগুণ করেন সার্জিও রামোস। এক মিনিট পরই স্বদেশী আনহেল ডি মারিয়ার বদলি নামেন মেসি। ৩২ দিন পর মাঠে ফিরলেন আর্জেন্টাইন তারকা।

লিওনেল মেসি ফেরায় আক্রমণভাগে আরো শক্তিশালী হয়ে ওঠে। স্বাগতিকদের একের পর এক আক্রমণে কোণঠাসা হয়ে ৬৭তম মিনিটে প্রতিপক্ষের ডিফেন্ডার ফয়েস নিজেদের জালেই বল পাঠিয়ে দেন। ৮ মিনিট পরই কিলিয়ান এমবাপ্পের পাস থেকে দানিলো পেরেইরা গোল করে পিএসজির জয় নিশ্চিত করে ফেলেন। বাকি সময় আর কোনো গোল না হলে ৪-০ গোলের বড় জয় নিয়ে মাঠ ছাড়ে পিএসজি।

এ জয়ে ফরাসি লিগ ওয়ানে শিরোপা ধরে রাখার অভিযানে ২২ ম্যাচে ১৬ জয় ও ৫ ড্রয়ে ৫৩ পয়েন্ট নিয়ে শীর্ষস্থান আরও মজবুত করল পচেত্তিনোর দল। সমান ম্যাচে ১৩ জয় ও ৪ ড্রয়ে ৪২ পয়েন্ট নিয়ে দুইয়ে আছে নিসে। ২২ ম্যাচে ২৪ পয়েন্ট নিয়ে ১৪-তে আছে রেঁসে।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ সম্পর্কিত আরো সংবাদ