• রবিবার, ০২ অক্টোবর ২০২২, ১০:০২ অপরাহ্ন

রনিসহ দগ্ধদের সহযোগিতার আশ্বাস জিএমপি কমিশনারের

প্রতিবেদকের নাম / ১৩ শেয়ার
প্রকাশিত : শনিবার, ১৭ সেপ্টেম্বর, ২০২২

গাজীপুর প্রতিনিধি
গাজীপুরে গ্যাস বেলুন বিস্ফোরণে দগ্ধ মিরাক্কেল খ্যাত কৌতুক অভিনেতা আবু হেনা রনি ও কনস্টেবল জিল্লুর রহমানকে হাসপাতালে দেখতে গেলেন গাজীপুর মেট্রোপলিটন পুলিশের (জিএমপি) কমিশনার মোল্যা নজরুল ইসলাম।

শনিবার (১৭ সেপ্টেম্বর) তিনি রনি ও জিল্লুরকে দেখতে ঢাকার শেখ হাসিনা জাতীয় বার্ন ও প্লাস্টিক সার্জারি ইনস্টিটিউটে যান।

এসময় তাদের চিকিৎসা বিষয়ে খোঁজখবর নেন।
পরে কৌতুক অভিনেতা আবু হেনা রনি ও পুলিশ সদস্য জিল্লুর রহমানের উপস্থিতিতে স্বজনদের সমবেদনা জানিয়ে সার্বিক সহযোগিতার আশ্বাস দেন জিএমপি কমিশনার। অনাকাঙ্খিত দুর্ঘটনার জন্য তিনি দুঃখ প্রকাশ করেন।

জিএমপি কমিশনার এসময় চিকিৎসক ডা. সামন্ত লাল সেনসহ অন্যান্য চিকিৎসকদের সর্বোচ্চ আন্তরিকতার সঙ্গে এ ঘটনায় দগ্ধদের চিকিৎসা দিতে অনুরোধ করেন।

গাজীপুর মেট্রোপলিটন পুলিশের সহকারী কমিশনার আবু সায়েম নয়ন বিষয়টি জানিয়েছেন।

তিনি জানান, শুক্রবার (১৬ সেপ্টেম্বর) বিকেলে গাজীপুর মেট্রোপলিটন পুলিশের ৪ বছর পূর্তি অনুষ্ঠানে গ্যাস বেলুন বিস্ফোরণে কৌতুক অভিনেতা আবু হেনা রনিসহ ৫ জন দগ্ধ হন। পরে তাদের মধ্যে আবু হেনা রনি ও কনস্টেবল জিল্লুর রহমানকে শেখ হাসিনা জাতীয় বার্ন ও প্লাস্টিক সার্জারি ইনস্টিটিউটে ভর্তি করা হয়।

দগ্ধরা হলেন কৌতুক অভিনেতা আবু হেনা রনি, গাজীপুর জেলা পুলিশ সদস্য মোশারফ হোসেন, টঙ্গী পূর্ব থানার কনস্টেবল জিলুর রহমান, গাছা থানার কনস্টেবল রুবেল মিয়া ও কনস্টেবল মো. ইমরান হোসেন।

শেখ হাসিনা জাতীয় বার্ন ও প্লাস্টিক সার্জারি ইন্সটিটিউটের প্রধান সমন্বয়ক ডা. সামন্ত লাল সেন জানিয়েছেন, বেলুন বিস্ফোরণে দগ্ধ কৌতুক অভিনেতা আবু হেনা রনি ও কনস্টেবল জিল্লুর রহমানের শ্বাসনালী সামান্য দগ্ধ হয়েছে। শনিবার (১৭ সেপ্টেম্বর) সকালে এ দুজনের শরীরে ড্রেসিং করা হয়েছে। আবু হেনা রনির দুই হাত, কান ও মুখমণ্ডলের কিছু অংশসহ শরীরের ২৫ শতাংশ দগ্ধ হয়েছে। এদিকে পুলিশ সদস্য জিল্লুর রহমানের শরীরের ১৯ শতাংশ দগ্ধ হয়েছে। তবে তাদেরকে শঙ্কামুক্ত বলা যাবে না। তাদের গভীর পর্যবেক্ষণে রাখা হয়েছে।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ সম্পর্কিত আরো সংবাদ