• সোমবার, ২৮ নভেম্বর ২০২২, ০১:৫৭ পূর্বাহ্ন

মানিক চন্দ্র দে-র কবিতা

আমার কাগজ ডেস্ক: / ১০৮ শেয়ার
প্রকাশিত : সোমবার, ২৮ মার্চ, ২০২২

বঙ্গবন্ধু, তোমার দেয়া স্বাধীনতা

বঙ্গবন্ধু, যেদিন তুমি স্বাধীনতা দিলে-
সেদিন অনুভব করেছি সেই সুখ,
যেন ঝড় বাদলের রাতে ভিজে-
শীতে, ভয়ে কাঁপা শরীরটিকে আমার
মা মুছে দিল আঁচলে, নিল পরম স্নেহে টেনে
শাড়ির আঁচলে।

বঙ্গবন্ধু, যেদিন তুমি স্বাধীনতা দিলে-
সেদিন আমি শিহরিত হলাম,
যেন মেলায় যাচ্ছি প্রথমবারের মত,
বাবার হাতটি ধরে। কিনবো বেলুন, বাঁশি
আরোও কত কী!

বঙ্গবন্ধু, যেদিন তুমি স্বাধীনতা দিলে-
সেদিন আমি বিস্মিত হলাম,
যেন আমি অজ গাঁয়ের এক লাজুক কিশোর,
প্রথম পা রাখলাম,
বিজলি বাতির আলো ঝলমল সদরঘাট টার্মিনালে। হাতে পেলাম রঙিন আইসক্রিম।

বঙ্গবন্ধু, যেদিন তুমি স্বাধীনতা দিলে-
সেদিন আমি পুলকিত হলাম,
যেন এক কাজল কালো চোখের
চঞ্চলা চপলা হরিণী কিশোরী
মেলা থেকে আমায় একটি মোহন বাঁশি
এনে উপহার দিল, গোপনে।

বঙ্গবন্ধু যেদিন তুমি স্বাধীনতা দিলে-
সেদিন আমি রোমাঞ্চিত হলাম,
যেন আমি প্রথম প্রেমে পড়লাম।
আমার হাতে তৃতীয় কারো হাত দিয়ে
সে গুঁজে দিল একটি সবুজ চিঠি-
শাদা জমিনের উপর, নীল কালিতে লেখা।

বঙ্গবন্ধু যেদিন তুমি স্বাধীনতা দিলে-
সেদিন আমি উচ্ছসিত হলাম, ঐ দিনটির মত
যেদিন আমি প্রথম বাবা হয়েছিলাম,

চরম শংকা আর অনিশ্চয়তার মাঝেও,
কোন এক ঝড়ের রাতে।

বঙ্গবন্ধু, তাই
তোমার দেওয়া স্বাধীনতা –
আমার কাছে যেন
আমার মায়ের স্নেহ
মেলায় যাওয়ার ব্যাকুলতা
ঢাকায় আসার পুলক
প্রেমে পড়ার শিহরণ
বাবা হওয়ার সুখ
একটি লাল সবুজ
পতাকা হাতে পাওয়া
আমার সবটুকু তৃপ্তি
নিয়ে নিঃশ্বাস নিয়ে
মুক্ত বিহঙ্গে উড়া।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ সম্পর্কিত আরো সংবাদ