• বৃহস্পতিবার, ২৬ মে ২০২২, ০১:৪২ পূর্বাহ্ন

ভারতে ভোটার আইডি-আধার কার্ডও বানিয়েছিলেন পি কে হালদার

আন্তর্জাতিক ডেস্ক: / ২৪ শেয়ার
প্রকাশিত : রবিবার, ১৫ মে, ২০২২

ভারতের পশ্চিমবঙ্গের উত্তর চব্বিশ পরগনা জেলার অশোকনগরে অভিযান চালিয়ে সুকুমার মৃধা নামের এক ঘনিষ্ঠ ব্যক্তির বাড়ি থেকে প্রশান্ত কুমার হালদার (পি কে হালদার) ও তার ভাই প্রণব কুমার হালদারসহ ছয়জনকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে।

বাংলাদেশ থেকে প্রায় সাড়ে তিন হাজার কোটি টাকা আত্মসাৎ করে ভারতে পালিয়ে যাওয়া পি কে হালদার সেখানে থাকার জন্য ভারতের রেশন কার্ড, ভোটার আইডি কার্ড ও আধার কার্ড করেছিলেন। ভারতের কেন্দ্রীয় অর্থ মন্ত্রণালয়ের তদন্তকারী সংস্থা এনফোর্সমেন্ট ডিরেক্টরেটের (ইডি) ওয়েবসাইটে আজ শনিবার এক বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়।

এর আগে শনিবার সকালে ইডির অভিযানে ভাই প্রণব কুমার হালদার এবং আরও চার জনসহ গ্রেপ্তার হন বাংলাদেশের এনআরবি গ্লোবাল ব্যাংকের অর্থ লোপাট মামলার মূল অভিযুক্ত ও পলাতক আসামি পি কে হালদার। গ্রেপ্তারের পর ছয় জনকে কলকাতায় সল্টলেকের সিজিও কমপ্লেক্সে ইডির আঞ্চলিক দপ্তরে নিয়ে আসা হয়।

ইডির ওয়েবসাইটে প্রকাশিত বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, শিবশংকর হালদার নাম ধারণ করে পশ্চিমবঙ্গের রেশন কার্ড, ভারতীয় ভোটার কার্ড, পারমানেন্ট অ্যাকাউন্ট নম্বর (পিএএন) ও আধার কার্ড তৈরি করেন পি কে হালদার।

ইডি আরও জানায়, শিবশংকর হালদার নামে কলকাতার অভিজাত এলাকায় বেশকিছু সম্পত্তিও কিনেছিলেন পি কে হালদার।

ইডি গতকাল শুক্রবারের পর আজ শনিবারও অশোকনগর সব রাজ্যের ১০টি জায়গায় অভিযান চালায়। ইডির ওয়েবসাইটে প্রকাশিত ওই বিজ্ঞপ্তিতে শনিবার এ তথ্য জানানো হয়। পি কে হালদার নাম পাল্টে শিবশংকর হালদার নামে পশ্চিমবঙ্গে থাকতেন বলে জানায় ইডি।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ সম্পর্কিত আরো সংবাদ