• বুধবার, ১৯ জানুয়ারী ২০২২, ০৭:৪৮ পূর্বাহ্ন

‘ভারতে আটক পুলিশ কর্মকর্তা সোহেল রানাকে ফিরিয়ে আনা হবে

আমার কাগজ প্রতিবেদকঃ / ৩৪ শেয়ার
প্রকাশিত : রবিবার, ৫ সেপ্টেম্বর, ২০২১

ঢাকা মেট্রোপলিটন (ডিএমপি) পুলিশের কমিশনার মোহা. শফিকুল ইসলাম বলেছেন, গ্রাহকের টাকা আত্মসাতের দায়ে অভিযুক্ত আলোচিত ই-কমার্স প্রতিষ্ঠান ই-অরেঞ্জের কথিত পৃষ্ঠপোষক বনানী থানার পরিদর্শক (তদন্ত) সোহেল রানাকে দেশে ফিরেয়ে আনা হবে।

রবিবার দুপুরে সাড়ে ১২টার দিকে গণমাধ্যমকে তিনি এ কথা জানান।

কমিশনার বলেন, যেহেতু ভারতে মামলা হয়েছে, এ কারণে তাকে ফিরিয়ে আনা যাবে কি না সেটি নিশ্চিত নয়। তবে ফিরিয়ে আনার রাস্তা রয়েছে। স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মাধ্যমে বিএসএফকে চিঠি দিয়ে ফিরিয়ে আনা সম্ভব। এটি অনেক সময় করা হয়। আমরা চেষ্টা করছি ফিরিয়ে আনার। যদি এই মাধ্যমে ফিরিয়ে আনা সম্ভব না হয় তাহলে পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় তাকে ফেরত আনার চেষ্টা করবে।

এদিকে আলোচিত ই-কমার্স প্রতিষ্ঠান ‘ই-অরেঞ্জের’ বিরুদ্ধে অর্থ আত্মসাতের অভিযোগে এক ভুক্তভোগীর দায়ের করা মামলায় ভারতে আটক বনানী থানার পরিদর্শক (ওসি তদন্ত) সোহেল রানাকেও আসামি করা হয়। ১০ জনকে অভিযুক্ত করে দায়ের করা মামলাটি আদালতের নির্দেশে রাজধানীর গুলশান থানা পুলিশ গ্রহণ করে। শনিবার সন্ধ্যায় গুলশান থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আবুল হাসান ঢাকা টাইমসকে এই তথ্য নিশ্চিত করেছেন। মামলাটি বৃহস্পতিবার দায়ের করা হলেও সোহেল রানা আটকের পর শনিবার বিষয়টি গণমাধ্যমে আসে।

গুলশানের ওসি জানান, আদালতের আদেশে বৃহস্পতিবার মামলাটি নেওয়া হয়। এখন তদন্ত চলছে। গ্রাহকের ৭৬ লাখ টাকা আত্মসাতের অভিযোগে প্রতিষ্ঠানটির ১০ জনকে অভিযুক্ত করা হয়েছে। মামলায় ভারতে আটক বনানী থানার পরিদর্শক (ওসি তদন্ত) সোহেল রানাকে ১০ নম্বর আসামি করা হয়।

মামলার বাকি আসামিরা হলেন- প্রতিষ্ঠানটির মালিক সোনিয়া মেহজাবিন, তার স্বামী মাসুকুর রহমান, প্রতিষ্ঠানটির চিফ অপারেটিং অফিসার (সিওও) আমান উল্লাহ, নাজনিন নাহার বিথি, কাওসার, কামরুল হাসান, আব্দুল কাদের, নূরজাহান ইসলাম সোনিয়া ও রুবেল খান।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ সম্পর্কিত আরো সংবাদ