• রবিবার, ১৪ অগাস্ট ২০২২, ১২:৫০ পূর্বাহ্ন

বিএনপি পতিত রাজনৈতিক দলে পরিণত: সেতুমন্ত্রী

আমার কাগজ ডেস্ক: / ১৪ শেয়ার
প্রকাশিত : শনিবার, ১৬ জুলাই, ২০২২

আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহণ ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের বলেছেন, জনগণের কাছে বারবার প্রত্যাখ্যাত হয়ে বিএনপি একটি পতিত রাজনৈতিক দলে পরিণত হয়েছে। তাদের আহ্বানে জনগণ কখনোই সাড়া দেয়নি। তারপরও দলটির নেতারা দিবাস্বপ্নের ঘোরে আচ্ছন্ন। তারা জনকল্যাণকর রাজনীতির পথ পরিহার করে সব সময় ষড়যন্ত্র ও চক্রান্তের মাধ্যমে রাষ্ট্রক্ষমতা দখলের পাঁয়তারা করে আসছে। বিএনপি কখনোই জনগণকে ক্ষমতার উৎস মনে করে না। বরং তারা রাজনৈতিক হীনস্বার্থ চরিতার্থে জনগণকে বিভ্রান্ত করার মধ্য দিয়ে ষড়যন্ত্র বাস্তবায়নে অপতৎপরতা চালিয়ে যাচ্ছে। বিএনপি নেতারা মিথ্যা তথ্য দিয়ে শুধু বন্ধুপ্রতিম রাষ্ট্রগুলোকেই বিভ্রান্ত করছে না, জনগণকেও উসকানি দেওয়ার অপচেষ্টা চালাচ্ছে। শুক্রবার এক বিবৃতিতে ওবায়দুল কাদের এসব কথা বলেন।

তিনি আরও বলেন, কয়েকদিন আগে মির্জা ফখরুল গণমাধ্যমে বিবৃতি দিয়ে যশোরের যুবদল নেতা হত্যাকাণ্ডের দায় আওয়ামী লীগের ওপর চাপিয়ে দিয়েছিলেন। অথচ বাদী পক্ষের এজাহার, প্রাথমিক তদন্তে উদঘাটিত তথ্য ও গণমাধ্যমে প্রকাশিত সংবাদের মাধ্যমে দেশবাসী জানতে পেরেছে, এই হত্যাকাণ্ডে বিএনপিই জড়িত। বিএনপি সন্ত্রাসীরা এই হত্যাকাণ্ডটি সংঘটিত করেছে। এর কারণও তাদের অভ্যন্তরীণ দ্বন্দ্ব ও আধিপত্য বিস্তার। এভাবেই কোনো ঘটনার সুষ্ঠু তদন্ত বা বিচারকে ব্যাহত বা ভিন্ন খাতে প্রবাহিত করার জন্য বিএনপি নেতারা মিথ্যা-বানোয়াট ও ভিত্তিহীন বক্তব্য দিয়ে থাকেন।

মন্ত্রী আরও বলেন, যখন তাদের অপপ্রয়াস ব্যর্থ হয় তখনই তারা উদ্দেশ্যপ্রণোদিতভাবে বিচারব্যবস্থাকে প্রশ্নবিদ্ধ করার ধৃষ্টতা দেখায়। দেশবাসী ভুলে যায়নি, বিএনপির আমলে কীভাবে আইনের ভুয়া ডিগ্রিধারী নেতাকে সর্বোচ্চ আদালতের বিচারপতি করে বিচারব্যবস্থাকে দলীয়করণ করা হয়েছিল। নিজেদের দলীয় লোককে তত্ত্বাবধায়ক সরকারের প্রধান করার লক্ষ্যে বিচারপতিদের বয়সসীমা বাড়ানো হয়েছিল। অন্যদিকে তারেক রহমানের নেতৃত্বে হাওয়া ভবন খুলে বিচার বিভাগসহ রাষ্ট্রের সব শাসন কাঠামোকে নিয়ন্ত্রণ করা হতো।

বিবৃতিতে ওবায়দুল কাদের বলেন, আওয়ামী লীগ আইনের শাসন প্রতিষ্ঠায় বদ্ধপরিকর। সফল রাষ্ট্রনায়ক শেখ হাসিনার নেতৃত্বে বিচারহীনতার অপসংস্কৃতির চৌহদ্দি ডিঙিয়ে বিচারের সংস্কৃতি প্রতিষ্ঠিত হয়েছে। একই সঙ্গে স্বাধীন বিচার বিভাগ প্রতিষ্ঠায় বহুমাত্রিক পদক্ষেপ বাস্তবায়িত হয়েছে। জনগণই আওয়ামী লীগের শক্তির একমাত্র উৎস। এ দেশের জনগণ শেখ হাসিনার নেতৃত্বে উন্নয়ন-অগ্রগতি ও সমৃদ্ধির অভিযাত্রায় মিছিলে ঐক্যবদ্ধ। আমরা বিএনপি নেতাদের প্রতি আহ্বান জানাব, ফ্যাসিবাদী ও স্বৈরতান্ত্রিক মানসিকতার ঘেরাটোপ থেকে বেরিয়ে জনকল্যাণকর রাজনীতির পথে আসার জন্য।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ সম্পর্কিত আরো সংবাদ