• শুক্রবার, ২০ মে ২০২২, ০১:৩৫ অপরাহ্ন

বিএনপিকে খালেদা-তারেকের আন্দোলন থেকে বেরোতে হবে: তথ্যমন্ত্রী

আমার কাগজ ডেস্ক: / ২২ শেয়ার
প্রকাশিত : মঙ্গলবার, ২৬ এপ্রিল, ২০২২

বিএনপির আন্দোলনে জনসমর্থ নেই বলে মনে করেন তথ্য ও সম্প্রচারমন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ। তিনি বলেছেন, দুই কোটির ঢাকা শহরে ২০০ মানুষ নিয়ে বিক্ষোভ করে বিএনপি। তাদের আন্দোলন খালেদা জিয়া ও তারেক জিয়া নিয়ে। এ থেকে বেরিয়ে বিএনপি জনস্বার্থ নিয়ে কথা বলবে বলে আশা প্রকাশ করেন তথ্যমন্ত্রী।

আজ মঙ্গলবার দুপুরে সচিবালয়ে তথ্য ও সম্প্রচার মন্ত্রণালয়ের সভাকক্ষে সাংবাদিক কল্যাণ ট্রাস্টের চেক বিতরণ অনুষ্ঠান শেষে সাংবাদিকদের এসব কথা বলেন মন্ত্রী। অনুষ্ঠানে তিনি প্রধান অতিথি হিসেবে অংশ নেন।

‘ঈদের পরে বিএনপির আন্দোলনের ঘোষণা’ হতে পারে বলে বিএনপির নেতাদের বক্তব্যের প্রসঙ্গে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে হাছান মাহমুদ বলেন, ‘এ ঈদের পরে, আগামী ঈদের পরে- আন্দোলনের এমন দিনক্ষণ বিএনপি আগেও দিয়েছে। এজন্য আমাদের অপেক্ষা করতে হবে, বিএনপি আসলে আন্দোলন করতে পারবে কি না।

‘ঢাকা শহরে দুই কোটি মানুষ বাস করে। ২০০ লোক নিয়ে বিএনপি ঢাকায় বিক্ষোভ করে। তাতেই বোঝা যায় তারা কতটুকু আন্দোলন করতে পারবে।’ বলেন তথ্যমন্ত্রী।

সরকারের ভুলত্রুটি থাকলে বিএনপি সেগুলো তুলে ধরুক- এমন অভিমত ব্যক্ত করে তথ্যমন্ত্রী বলেন, ‘তাদের আন্দোলন শুধু তারেক রহমানের শাস্তি বাতিল আর খালেদা জিয়ার চিকিৎসার মধ্যে সীমাবদ্ধ। এটা থেকে তারা বেরিয়ে আসুক। আশা করি, তারা জনগণের বিষয় নিয়ে কথা বলবে, সরকারের ভুলত্রুটি থাকলে সেগুলো তুলে ধরবে।’

দেশে দৈনিক পত্রিকার প্রচারসংখ্যা নিয়ে এক প্রশ্নের জবাবে তথ্যমন্ত্রী বলেন, অনেক পত্রিকা আছে, যেগুলো ঠিকভাবে প্রকাশিত হয় না। সেগুলোর বিপুল প্রচারসংখ্যা দেখানো হয়েছে। এসব অসংগতি দূর করে আমরা এগুলো ঠিক করছি।’ অষ্টম ওয়েজবোর্ড যারা বাস্তবায়ন করেনি, তাদের সরকারের কোনো ক্রোড়পত্র দেওয়া হবে না, সিদ্ধান্ত নিয়েছেন বলে জানান তিনি।

এর আগে মন্ত্রী কল্যাণ ট্রাস্টের চেক বিতরণ অনুষ্ঠানে বলেন, ‘প্রধানমন্ত্রীর আগ্রহে গঠিত এ কল্যাণ ট্রাস্ট সাংবাদিকদের একটি ভরসার জায়গা হিসেবে দাঁড়িয়েছে। সাংবাদিক কল্যাণ ট্রাস্ট অত্যন্ত সুচারু এবং স্বচ্ছভাবে পরিচালিত হচ্ছে। ট্রাস্টের আওতায় অসচ্ছল সাংবাদিকদের ছেলেমেয়েদের শিক্ষাসহায়তা নীতিমালাও চূড়ান্ত হয়েছে।’

কল্যাণ ট্রাস্টের ব্যবস্থাপনা পরিচালক সুভাষ চন্দ বাদলের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি ছিলেন বাংলাদেশ ফেডারেল সাংবাদিক ইউনিয়নের সভাপতি ওমর ফারুক, সাধারণ সম্পাদক দীপ আজাদ ও ঢাকা সাংবাদিক ইউনিয়নের সাধারণ সম্পাদক আকতার হোসেন।

অন্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন প্রধান তথ্য অফিসার মো. শাহেনুর মিয়া, মন্ত্রণালয়ের যুগ্ম-সচিব মো. মাহফুজুল হক, ডিইউজের সহ-সভাপতি মানিক লাল ঘোষ, কল্যাণ ট্রাস্টের সদস্য সেবিকা রাণী প্রমুখ।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ সম্পর্কিত আরো সংবাদ