• বৃহস্পতিবার, ২৬ মে ২০২২, ০১:০৫ পূর্বাহ্ন

ফেনীর পরশুরামের বেড়িবাঁধের মাটি এখন ইটভাটায়

প্রতিবেদকের নাম / ৪০ শেয়ার
প্রকাশিত : সোমবার, ১৪ মার্চ, ২০২২

আলাউদ্দিন, ফেনী:
ফেনীর পরশুরামের সিলোনিয়া নদীর সেতুর পাশ থেকে বেড়িবাঁধের মাটি কেটে ইটভাটায় বিক্রি করছে একটি চক্র। উপজেলার মির্জানগর ইউনিয়নের জঙ্গলঘোনা গ্রামে প্রায়ই এই ঘটনা ঘটছে। তাতে সেতুটি ঝুঁকিপূর্ণ হয়ে পড়ছে। মাটি ব্যবসায়ীরা প্রভাবশালী হওয়ায় তাদের বিরুদ্ধে কেউ প্রতিবাদ করার সাহস পাচ্ছে না। উপজেলার ভক্ত মজুমদারের ছেলে হাবিবুর রহমানের নেতৃত্বে একদল মাটি ব্যবসায়ী এই কাজ করছেন বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে।

তবে তিনি এই অভিযোগ অস্বীকার করেছেন। নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক মির্জানগর ইউনিয়ন পরিষদের এক সদস্য জানান, সিলোনীয়া নদীর বন্যানিয়ন্ত্রণ বাঁধের মাটি কাটার কারণে বর্ষা মৌসুমে পাঁচ গ্রামের মানুষ বন্যাকবলিত হবে। বেড়িবাঁধটি ধসে পড়লে ঘরবাড়িসহ আবাদি জমির ফসলের ব্যাপক ক্ষতি হতে পারে। বেড়িবাঁধের মাটি অবৈধভাবে কেটে বিক্রি বন্ধের ব্যাপারে উপজেলা প্রশাসনের হস্তক্ষেপ কামনা করেন তিনি। স্থানীয়দের অভিযোগ, একাধিক ইটভাটার মালিক ও কতিপয় মাটি ব্যবসায়ী খননযন্ত্র দিয়ে এসব মাটি কেটে নিয়ে যাচ্ছে। মাটি ব্যবসায় প্রভাবশালীদের ছত্রচ্ছায়ায় থাকায় এই সিন্ডিকেট চক্রের ভয়ে এলাকার সাধারণ মানুষ প্রতিবাদ করার সাহস পায় না। বেড়িবাঁধের উপরিভাগের মাটি কেটে নেওয়ার ফলে নদীর পাড়ে গভীর গর্ত হচ্ছে।

সেখান থেকে খননযন্ত্র দিয়ে বালু উত্তোলন করা হচ্ছে। নদীর বন্যা নিয়ন্ত্রণ বাঁধ থেকে মাটি কেটে নিয়ে যাওয়ার ফলে বর্ষা মৌসুমে বেড়িবাঁধে ভাঙনের কারণে বড় ধরনের ক্ষতির আশঙ্কা করছেন স্থানীয়রা। উপজেলা এলজিইডি প্রকৌশলী মো. শাহ আলম ভূঁইয়া জানান, সেতুর নিচ থেকে মাটি কাটার বিষয়টি তিনি শুনেছেন। সরেজমিন দেখে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার সঙ্গে কথা বলে অভিযুক্তদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে। তবে অভিযুক্ত হাবিবুর রহমান অভিযোগ অস্বীকার করে বলেন, তিনি ওই বেড়িবাঁধের মাটি কাটার সঙ্গে জড়িত নন। তিনি শুধু উপজেলা প্রশাসন থেকে অনুমোদিত বিভিন্ন ব্যক্তির পুকুর ও ফসলি জমির মাটি কাটেন। তাঁর কাছে ছয়টি খননযন্ত্র রয়েছে। উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা প্রিয়াঙ্কা দত্ত বলেন, যারা বিধিনিষেধ উপেক্ষা করছে, তাদের বিরুদ্ধে অবশ্যই ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

ইতিমধ্যে উপজেলার কয়েকটি জায়গায় অভিযান চালিয়ে জরিমানা করা হয়েছে। বেড়িবাঁধের মাটি কাটার বিষয়টি তিনি খতিয়ে দেখে সত্যতা পেলে আইনগত ব্যবস্থা নেবেন।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ সম্পর্কিত আরো সংবাদ