• বুধবার, ১৭ অগাস্ট ২০২২, ০৭:০৫ অপরাহ্ন

প্রয়োজনে ডা. মুরাদ ও মাহিকে ডিবিতে ডাকা হবে

আমার কাগজ ডেস্ক: / ৭৬ শেয়ার
প্রকাশিত : মঙ্গলবার, ৭ ডিসেম্বর, ২০২১

সুনির্দিষ্ট অভিযোগ পাওয়া গেলে সদ্য পদত্যাগপত্র জমা দেওয়া তথ্য ও সম্প্রচার প্রতিমন্ত্রী ডা. মুরাদ হাসানকে গোয়েন্দা কার্যালয়ে ডেকে জিজ্ঞাসাবাদ করা হতে পারে বলে জানিয়েছেন ডিবির যুগ্ম কমিশনার মোহাম্মদ হারুন অর রশীদ। প্রয়োজনে চিত্রনায়িকা মাহিকে ডাকা হবে বলেও জানান তিনি।

মঙ্গলবার দুপুরে টেলিফোনে এ কথা বলেন তিনি।

এর আগে মিন্টো রোডে ডিবি কার্যালয়ের সামনে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে হারুন অর রশীদ বলেন, গত রাতে চিত্রনায়ক ইমন ডিবি কার্যালয়ে আসেন। তাকে জিজ্ঞাসাবাদ করা হয়েছে। তার মোবাইল থেকে এই অডিও ফাঁস হয়েছে কিনা তা খতিয়ে দেখা হচ্ছে। এছাড়া তাকে বিভিন্ন বিষয় নিয়ে জিজ্ঞাসাবাদ করা হয়েছে।

নায়ক ইমনের মোবাইল থেকে অডিওটি ছড়িয়েছে কিনা জানতে চাইলে তিনি বলেন, এ বিষয়টি আমরা খতিয়ে দেখছি। আমরা এখনো তদন্ত করছি এটা।

আনুষ্ঠানিকভাবে কেউ অভিযোগ দিলে নায়ক ইমন ও মাহিয়া মাহিকে একসঙ্গে জিজ্ঞাসাবাদ করা হবে কিনা জানতে চাইলে ডিবির এই কর্মকর্তা বলেন, আনুষ্ঠানিকভাবে কেউ যদি অভিযোগ করেন এবং আমাদের ডিবি সাইবার ক্রাইম ইউনিটে অভিযোগ আসে তাহলে আমরা তদন্ত করে ব্যবস্থা নেবো। তিনি বলেন, মাহি এখন দেশের বাইরে। তিনি দেশে ফিরলে প্রয়োজনে তাকে জিজ্ঞাসাবাদ করা হবে।

সেদিন ফোনালাপের পরে ধর্ষণ সংগঠিত হয়েছিল কি না এমন প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, ‘এ ধরনের অভিযোগ আমাদের কাছে এখনো আসেনি। আমরা প্রয়োজনে সবার সঙ্গেই কথা বলবো।’

নায়ক ইমনের বিরুদ্ধে একটি অভিযোগ রয়েছে তিনি নায়িকাদের বিভিন্নভাবে ব্যবহার করেন, প্রতিমন্ত্রীর কাছেও তিনি নিয়ে যাওয়ার কথা বলছিলেন, আপনারা ইমনের বিরুদ্ধে কোনো ব্যবস্থা নেবেন কি না জানতে চাইলে তিনি বলেন, ‘কেবল আনুষ্ঠানিকভাবে অভিযোগ পেলেই বিষয়টি আমরা খতিয়ে দেখবো।’

প্রসঙ্গত, মুরাদ হাসান জামালপুর-৪ (সরিষাবাড়ী উপজেলা) আসনের সংসদ সদস্য। তার বাবা প্রয়াত মতিউর রহমান তালুকদার জামালপুর জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ছিলেন।

বেশ কিছু দিন ধরে বিভিন্ন বিষয়ে বিতর্কিত বক্তব্য এবং কর্মকাণ্ডের কারণে মুরাদ সংবাদের শিরোনাম হয়েছেন। সম্প্রতি সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে প্রতিমন্ত্রীর কিছু অডিও-ভিডিও ছড়িয়ে পড়ায় দেশজুড়ে নিন্দা ও সমালোচনার ঝড় বইছে।

এতে বিব্রতকর অবস্থায় পড়ে ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগ ও সরকার। সোমবার প্রধানমন্ত্রী মুরাদ হাসানকে পদত্যাগের নির্দেশ দেন। বিষয়টি নিশ্চিত করে আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের জানিয়েছিলেন, মঙ্গলবারের মধ্যেই পদত্যাগ করতে বলা হয়েছে মুরাদকে। আজ তিনি পদত্যাগের আবেদন করেছেন।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ সম্পর্কিত আরো সংবাদ