• মঙ্গলবার, ২৫ জানুয়ারী ২০২২, ১১:৪৭ অপরাহ্ন

প্রোটিয়াদের বিপক্ষেই পরাজয়ের বৃত্ত ভাঙ্গতে চায় বাংলাদেশ

স্পোর্টস ডেস্ক: / ৪১ শেয়ার
প্রকাশিত : মঙ্গলবার, ২ নভেম্বর, ২০২১

সেমিফাইনালের দৌঁড় থেকে আপাত ছিটকে পড়লেও পরাজয়ের বৃত্ত থেকে বেরিয়ে আসতে চায় বাংলাদেশ ক্রিকেট দল। এমন লক্ষ্য নিয়েই মঙ্গলবার চলতি টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের সুপার টুয়েলভে দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে নিজেদের চতুর্থ ম্যাচে আবু ধাবির শেখ জায়েদ ক্রিকেট স্টেডিয়ামে নামবে টাইগাররা।

বাংলাদেশ সময় বিকেল ৪টায় শুরু হওয়া ম্যাচটি সরাসরি দেখাবে গাজী টিভি ও টি-স্পোটর্স।

এখন পর্যন্ত দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে টি-টোয়েন্টি ফরম্যাটে ছয়টি ম্যাচ খেলে সবকটিতেই পরাজিত হয়েছে বাংলাদেশ। ক্রিকেটের সংক্ষিপ্ততম ফরমাটে আফ্রিকান দেশটির বিপক্ষে জয়ের খরা কাটাতে ২০১৭ সালের পর প্রথমবারের মতো টেম্বা বাভুমার দলের মুখোমুখি হবে টাইগাররা।

সুপার টুয়েলভে নিজেদের প্রথম ম্যাচে শ্রীলঙ্কার কাছে ৫ উইকেটে হারে বাংলাদেশ। এরপর ইংল্যান্ডের কাছে হারে ৮ উইকেটে। তবে নিজেদের তৃতীয় ম্যাচে ওয়েস্ট ইন্ডিজের কাছে ৩ রানে হার ছিলো হৃদয় বিদারক। শ্রীলঙ্কা ও ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে জিততে পারলে টুর্নামেন্টে দারুণভাবে লড়াইয়ে থাকতো টাইগাররা।

গাণিতিকভাবে বাংলাদেশের শেষ চারে ওঠার সুযোগ এখনও সম্ভব। কিন্তু এ জন্য একসঙ্গে অনেক কিছু ঘটতে হবে, যার অনেক কিছুই বাংলাদেশের নিয়ন্ত্রণে নেই। তবে রিয়াদের দল যা নিয়ন্ত্রণ করতে পারে তা হলো- দক্ষিণ আফ্রিকা এবং অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে নিজেদের শেষ দু’টি ম্যাচে জয়, যা বাংলাদেশি সমর্থকদের মুখে হাসি ফোটাতে পারে।
কিন্তু এই ইভেন্টে টাইগাররা বারবার ব্যর্থ হওয়ায় ভক্ত-সমর্থকরা হতাশ। তার ওপর টাইগার দলের বড় ধাক্কা হ্যামস্ট্রিং ইনজুরির কারণে টুর্নামেন্ট থেকে ছিটকে পড়েছেন অলরাউন্ডার সাকিব আল হাসান। এ অবস্থার পরও প্রয়োজনীয় সময়ে সতীর্থদের জ্বলে ওঠার আহ্বান জানিয়েছেন অধিনায়ক মাহমুদুল্লাহ রিয়াদ।

এদিকে, টুর্নামেন্টে এখন পর্যন্ত তিন ম্যাচে দু’টি করে জয় পেয়ে দারুণ ফর্মে রয়েছে দক্ষিণ আফ্রিকা ও অস্ট্রেলিয়া। নিজেদের প্রথম ম্যাচে অস্ট্রেলিয়ার কাছে হেরেছে দক্ষিণ আফ্রিকা। আবার ইংল্যান্ডের কাছে পরাজিত হয়েছে অস্ট্রেলিয়া। গ্রুপ-১ এ পারফরমেন্সের বিচারে ইংল্যান্ডই একমাত্র ভয়ঙ্কর দল। যারা ইতোমধ্যেই প্রথম দল হিসেবে সেমিফাইনাল নিশ্চিত করেছে।

এমন অবস্থায় এই গ্রুপ থেকে দ্বিতীয় দল হিসেবে সেমিফাইনালে যাবার দৌঁড়ে টিকে থাকতে বাংলাদেশের বিপক্ষে নিজেদের ম্যাচগুলোতে জিততে চাইবে দক্ষিণ আফ্রিকা ও অস্ট্রেলিয়া।

তবে দক্ষিণ আফ্রিকা এবং অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে জয় ছাড়া নেট রান-রেটও বাড়ানোর লক্ষ্য তাদের থাকবে বলে আগেই জানিয়েছিলেন মাহমুদুল্লাহ। সেমিফাইনালে যাবার সামান্যতম সুযোগটাও কাজে লাগাতে চান তিনি।

হতাশাজনক বিশ্বকাপ যাত্রায় কিছুটা সান্তনা পেতে ও গাণিতিকভাবে বাংলাদেশের সম্ভাবনাকে বাঁচিয়ে রাখতে, শেষ দু’টি ম্যাচে জয়ের জন্য লক্ষ্য স্থির করেছেন।

দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে বাংলাদেশ উদ্বিগ্ন, কারণ এখনও টি-টোয়েন্টি ফরম্যাটে আফ্রিকান দেশটির বিপক্ষে কোনও জয় পায়নি টাইগাররা। সেইসঙ্গে এখন পর্যন্ত ১১৮ ম্যাচ খেলে ৪৩টি জিতেছে বাংলাদেশ। ৭৩ ম্যাচে হার ও দু’টি পরিত্যক্ত হয়েছে।

আর ক্রিকেটের এই সংক্ষিপ্ত সংস্করণের বিশ্বকাপে ৩০টি ম্যাচ খেলেছে এবং মাত্র সাতটিতে জিতেছে বাংলাদেশ। ২০০৭ সালের টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে বাছাই পর্বে একটি ম্যাচ জিতেছে তারা।

বাংলাদেশ একাদশ (সম্ভাব্য): মোহাম্মদ নাঈম, সৌম্য সরকার, লিটন দাস (উইকেটরক্ষক), মুশফিকুর রহিম, মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ (অধিনায়ক), আফিফ হোসাইন, শামীম হোসাইন, মাহেদী হাসান, শরিফুল ইসলাম, তাসকিন আহমেদ, মুস্তাফিজুর রহমান।

দক্ষিণ আফ্রিকা একাদশ (সম্ভাব্য): কুইন্টন ডি কক (উইকেটরক্ষক), রিজা হেন্ড্রিক্স, রাসি ফন ডার ডুসেন, টেম্বা বাভুমা (অধিনায়ক), এইডেন মার্করাম, ডেভিড মিলার, ডোয়াইন প্রিটোরিয়াস, কাগিসো রাবাদা, কেশব মহারাজ, অ্যানরিক নরকিয়া, তাবারাইজ শামসি।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ সম্পর্কিত আরো সংবাদ