• শুক্রবার, ২০ মে ২০২২, ০১:৪০ অপরাহ্ন

প্রস্তাবিত গণমাধ্যম আইন বাতিলের দাবি সাংবাদিক নেতাদের

আমার কাগজ ডেস্ক: / ৩৯ শেয়ার
প্রকাশিত : রবিবার, ২৭ ফেব্রুয়ারী, ২০২২

জাতীয় সংসদে উপস্থাপনের অপেক্ষায় থাকা গণমাধ্যম আইন- ২০২২ বাতিলের দাবি জানিয়েছেন সাংবাদিক নেতারা। এই আইন সাংবাদিকদের বিরুদ্ধে এক ‘গভীর ষড়যন্ত্রের ফসল’ মনে করেন তারা।

রবিবার বেলা ১২টায় জাতীয় প্রেসক্লাব প্রাঙ্গণে ‘জাস্টিস ফর জার্নালিস্ট’ আয়োজিত মানববন্ধন থেকে এই দফা দাবি জানানো হয়।

মানববন্ধনে বাংলাদেশ ফেডারেল সাংবাদিক ইউনিয়নের (বিএফইউজে) মহাসচিব দীপ আজাদ বলেন, প্রস্তাবিত গণমাধ্যম কর্মী আইন- ২০২২ সংবাদকর্মীদের অধিকার পরিপন্থী। এটি সাংবাদিকদের বিরুদ্ধে এক গভীর ষড়যন্ত্রের ফসল। আইনটি জাতীয় সংসদে উপস্থাপনের আগে ব্যাপক সংস্কার প্রয়োজন।

ঢাকা সাংবাদিক ইউনিয়নের (ডিইউজে) সভাপতি কুদ্দুস আফ্রাদ বলেন, প্রস্তাবিত গণমাধ্যম কর্মী আইন ২০২২ আইনে কোনো বিচারিক আদালত নেই এবং কোন আইনে সাংবাদিকরা বিচার পাবে তা ঠিক করা হয়নি। নতুন আইনের নামে সাংবাদিক সমাজকে শ্রম দাসে পরিণত করা হচ্ছে। যে ধারাগুলো সংযোজিত হয়েছে, তা কোনোভাবেই সাংবাদিকবান্ধব হতে পারে না। তিনি অবিলম্বে আইনটির খসড়া জনসম্মুখে প্রকাশের দাবি জানান।

কুদ্দুস আফ্রাদ আরও বলেন, গণমাধ্যম কর্মী আইন ২০২২ কোনোভাবেই সাংবাদিক সমাজ মেনে নেবে না। আইনটি আরও পর্যালোচনার দাবি জানান তিনি।

ঢাকা সাংবাদিক ইউনিয়নের (ডিইউজে) সাধারণ সম্পাদক সাজ্জাদ আলম তপু বলেন, প্রস্তাবিত আইনের খসড়ায় বিদ্যমান শ্রম আইন বাতিল করে ইউনিয়ন বিলুপ্ত করাসহ ব্যাপক আকারে সাংবাদিকদের বিদ্যমান সুযোগ-সুবিধা থেকে বঞ্চিত করা হয়েছে। সংবাদমাধ্যমে কর্মরত ক্যামেরা পারসনদের কলাকুশলী হিসেবে উল্লেখ করা হয়েছে, যা রীতিমত হাস্যকর। এটা মেনে নেওয়া যায় না।

গণমাধ্যম কর্মীদের ন্যায়বিচার, আর্থ-সামাজিক উন্নয়ন ও গবেষণাধর্মী সংগঠন ‘জাস্টিস ফর জার্নালিস্ট’ এর সভাপতি কামরুল ইসলামের সভাপতিত্বে ও সেক্রেটারি জেনারেল শাহিন বাবুর সঞ্চালনায় মানববন্ধনে বক্তব্য দেন সংগঠনের সিনিয়র সহসভাপতি জাহাঙ্গীর খান বাবু।

সংহতি জানিয়ে বক্তব্য দেন জাতীয় প্রেসক্লাবের কোষাধ্যক্ষ সাহেদ চৌধুরী, ঢাকা সাংবাদিক ইউনিয়নের সাবেক যুগ্ম সম্পাদক আকতার হোসেন, সাবেক জনকল্যাণ সম্পাদক মেহেদি হাসান, বিএফইউজে- বাংলাদেশ ফেডারেল সাংবাদিক ইউনিয়নের সাবেক দপ্তর সম্পাদক বরুণ ভৌমিক নয়ন, ঢাকা সাংবাদিক ইউনিয়নের যুগ্ম সম্পাদক খায়রুল আলম, বঙ্গবন্ধু সাংবাদিক পরিষদের সদস্য সচিব আবু সাঈদ, সিনিয়র সাংবাদিক কবি আব্দুল মান্নান, সাখাওয়াত হোসেন, টেলিভিশন ক্যামেরাপারসন জার্নালিস্ট এসোসিয়েশনের সাধারণ সম্পাদক শহিদুল হক জীবন, শাহজাহান সাজু, নিউ নেশন ডিইউজে ইউনিয়ন প্রধান হেমায়েত হোসেন, গোপালগঞ্জ সাংবাদিক ইউনিয়নের সাধারণ সম্পাদক আব্দুল ফাত্তাহ, ময়মনসিংহ সাংবাদিক ইউনিয়নের সহসভাপতি মোশারেফ হোসেন, সাংবাদিক নেতা মানিক লাল ঘোষ প্রমুখ।

বক্তারা প্রস্তাবিত আইনটি প্রত্যাহার করে সাংবাদিকদের জন্য বিদ্যমান শ্রম আইনটি সংশোধন করে যুগোপযোগী করার দাবিসহ ইলেকট্রনিক ও অনলাইন মিডিয়া কর্মীদের জন্য আইন করে বিদ্যমান শ্রম আইনের সাথে সংযুক্ত করার দাবি জানানো হয়।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ সম্পর্কিত আরো সংবাদ