• রবিবার, ২২ মে ২০২২, ০৬:৫৬ পূর্বাহ্ন

পশ্চিমা অস্ত্র সরবরাহ নিয়ে যে ‘অভিযোগ’ করল ইউক্রেন

আন্তর্জাতিক ডেস্ক: / ২৩ শেয়ার
প্রকাশিত : বুধবার, ১১ মে, ২০২২
TOPSHOT - Turkish army tanks gather close to the Syrian border on January 21, 2018 at Hassa, in Hatay province. Turkish forces on January 20, 2018, began a major new operation aimed at ousting the Peoples' Protection Units (YPG) Kurdish militia from Afrin, pounding dozens of targets from the sky in air raids and with artillery. Turkey accuses the YPG of being the Syrian offshoot of the Kurdistan Workers' Party (PKK) which has waged a rebellion in the Turkish southeast for more than three decades and is regarded as a terror group by Ankara and its Western allies. / AFP PHOTO / BULENT KILIC (Photo credit should read BULENT KILIC/AFP/Getty Images)

ইউক্রেন যুদ্ধের শুরুতেই পশ্চিমা দেশগুলো অস্ত্র পাঠাতে অনীহা প্রকাশ করেছিল বলে জানিয়েছেন ইউক্রেনের পররাষ্ট্রমন্ত্রী দিমিত্রো কুলেবা। কাতারভিত্তিক সংবাদমাধ্যম আল জাজিরা বুধবার এক প্রতিবেদনে এ তথ্য জানিয়েছে।

দিমিত্রো কুলেবা দুঃখপ্রকাশ বলেন, যুদ্ধের শুরুতেই তারা অস্ত্র সরবরাহ করলে হাজার হাজার জীবন বাঁচানো যেত।

পলিটিকোকে দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে দিমিত্রো কুলেবা বলেন, আমাদের যে সব অস্ত্র দরকার সেগুলো সম্পর্কে যদি তারা আগে থেকেই আমাদের কথা শুনত, যদি কেন আমাদের বিশেষভাবে এই অস্ত্রের প্রয়োজন এবং অন্য অন্ত্র নয়, তা ইউরোপ এবং যুক্তরাষ্ট্রের কাছে ব্যাখ্যা করার জন্য ঘণ্টা এবং দিন ব্যয় করতে না হতো তাহলে আমরা ইতোমধ্যে সব প্রয়োজনীয় অস্ত্র পেয়ে যেতাম।

তিনি আরও বলেন, বিশ্বজুড়ে পুরোনো সোভিয়েত যুগের অস্ত্র ইউক্রেনে পাঠানোর জন্য সেগুলোর মজুদ খুঁজতে যুক্তরাষ্ট্র সপ্তাহ ব্যয় করেছে।

কুলেবা বলেন, জার্মানির রামস্টেইন বিমান ঘাঁটিতে সেই বৈঠকটি ছিল গুরুত্বপূর্ণ ঘটনা। ওই বৈঠকেই মার্কিন প্রতিরক্ষামন্ত্রী লয়েড অস্টিন এবং সেনাপ্রধান জেনারেল মার্ক মিলি ইউরোপীয় মিত্রদের ইউক্রেনকে অস্ত্র স্থানান্তর করতে রাজি করান।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ সম্পর্কিত আরো সংবাদ