• বৃহস্পতিবার, ০৯ ডিসেম্বর ২০২১, ০৫:১৩ অপরাহ্ন

নোয়াখালীতে বিএনপি-জামায়াত নেতাসহ গ্রেফতার ১১

আমার কাগজ প্রতিবেদকঃ / ৪২ শেয়ার
প্রকাশিত : সোমবার, ২৫ অক্টোবর, ২০২১

নোয়াখালীর বেগমগঞ্জের চৌমুহনীতে সংখ্যালঘু সম্প্রদায় ও তাদের ধর্মীয় উপাসনালয়ে হামলার ঘটনায় বিএনপি-জামায়াত নেতাসহ ১১ জনকে গ্রেফতার করা হয়েছে।

রোববার (২৪ অক্টোবর) দিনগত রাতে জেলা গোয়েন্দা শাখার (ডিবি) বিভিন্ন থানা পুলিশের বিশেষ অভিযানে তাদের গ্রেফতার করা হয়।

গ্রেফতাররা হলেন- জেলা স্বেচ্ছাসেবক দলের সহ-সভাপতি ও বেগমগঞ্জের রাজুল্লাহপুর গ্রামের আবু হানিফের ছেলে ফয়সাল ইনাম কমল (৩৯), সেনবাগের বীজবাগ ইউনিয়নের সাবেক চেয়ারম্যান জামায়াত নেতা মো. হারুনুর রশিদ (৪৮), জেলা যুবদলের সহ-সাংগঠনিক সম্পাদক মো. রায়হান (৩৮), পূর্ব চরমটুয়া বিএনপির যুগ্ম আহবায়ক ফয়সাল বারী চৌধুরী (৪৫), পূর্ব চরমটুয়া ইউনিয়ন ছাত্রদলের সদস্যসচিব বেলায়েত হোসেন (২৬), মীরওয়ারিশপুরের তোফায়েল আহমদের ছেলে আলাউদ্দিন (২৮), নরোত্তমপুরের মজিবুল হকের ছেলে ফজলুল করিম সুমন (৩২), পৌর হাজীপুরের রুহুল আমিনের ছেলে আবদুল বাকী শামীম (৪১), কোম্পানীগঞ্জের চরহাজারী তিন নম্বর ওয়ার্ডের আবদুস সোবহানের ছেলে মিন্টু (২৩), চাটখিলের ছয়ানী টগবা গ্রামের শাহজাহানের ছেলে পারভেজ হোসেন (২৯), সোনাইমুড়ীর দক্ষিণ পেয়ারপুরের মৃত বদি আলমের ছেলে আবদুল বারেক (৫৫)।

সোমবার (২৫ অক্টোবর) বেলা ১১টায় জেলা পুলিশ সুপার কার্যালয়ে সংবাদ সম্মেলনে এ তথ্য জানান নোয়াখালী পুলিশ সুপার (এসপি) মো. শহীদুল ইসলাম।

তিনি বলেন, গ্রেফতারদের বিরুদ্ধে ফেসবুকে অপপ্রচার, হামলা, ভাঙচুর ও অগ্নিসংযোগসহ বিভিন্ন অপরাধের সুনির্দিষ্ট অভিযোগ রয়েছে। তাদের বিরুদ্ধে ডিজিটাল নিরাপত্তাসহ সংশ্লিষ্ট ধারায় মামলা দিয়ে আদালতে সোপর্দ করা হয়। আরও তথ্যের জন্য তাদের রিমান্ডে চেয়েছে পুলিশ।

তিনি আরও বলেন, গ্রেফতাররা রাজনৈতিক উদ্দেশ্য হাসিলের জন্য সংঘবদ্ধভাবে সরকার ও একটি সম্প্রদায়ের বিরুদ্ধে ফেসবুকসহ বিভিন্ন মাধ্যমে উসকানিমূলক পোস্ট দিয়ে এমন পরিস্থিতির সৃষ্টি করেছেন।

এদিকে জেলায় পূজামণ্ডপে হামলার ঘটনায় ২৬ মামলায় গ্রেফতার করা হয়েছে ১৯২ জনকে। এদের মধ্যে এজাহারনামীয় ৯০ ও সন্দেহভাজন ১০২ জন। এছাড়া শুধু বেগমগঞ্জের হামলার ঘটনায় ১১ মামলায় ১৩৫ জনকে গ্রেফতার করা হয়েছে।

ভিডিও ফুটেজ ও আসামিদের ১৬৪ ধারায় জবানবন্দি মতে অপরাধীদের গ্রেফতার করা হচ্ছে বলে জানান পুলিশ সুপার মো. শহীদুল ইসলাম। এজন্য তিনি সাংবাদিকসহ সমাজের সচেতন মহলের সহযোগিতা কামনা করেন।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ সম্পর্কিত আরো সংবাদ