• শুক্রবার, ০১ জুলাই ২০২২, ০১:৫৩ পূর্বাহ্ন

নিরপেক্ষ সরকার না থাকলে ইসি কিছুই করতে পারবে না: ফখরুল

আমার কাগজ ডেস্ক: / ১৪ শেয়ার
প্রকাশিত : মঙ্গলবার, ১৪ জুন, ২০২২

নিরপেক্ষ সরকার না থাকলে কোনো নির্বাচন কমিশনের পক্ষে কিছুই করা সম্ভব নয় বলে মন্তব্য করেছেন বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর। তিনি বলেন, ‘নির্বাচন কমিশন যেই আসুক, তারা কিছুই করতে পারবে না, যদি সরকার পরিবর্তন না হয় নির্বাচনের সময় যদি নিরপেক্ষ সরকার না থাকে তাহলে কোনো নির্বাচন কমিশনের পক্ষেই কোনো কিছু করা সম্ভব নয়।তার প্রমাণ হয়ে গেছে কুমিল্লা সিটি করপোরেশন নির্বাচনে।’

মঙ্গলবার বিকালে ঠাকুরগাঁওয়ে বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী জেলা মহিলা দলের সঙ্গে অনুষ্ঠিত মতবিনিময় সভায় তিনি এ কথা বলেন।

এই নির্বাচন কমিশন প্রথম ভাগেই দেখালো যে, তার ক্ষমতা নেই উল্লেখ করে বিএনপি মহাসচিব বলেন, ‘একজন সংসদ সদস্যকে নির্বাচনীবিধি মানার ও বিধি অনুযায়ী নির্বাচনী এলাকা থেকে তাকে বাইরে বের করে নিয়ে আসতে পারেনি। তাহলে সেই নির্বাচন কমিশন ভবিষ্যতে কীভাবে নির্বাচন পরিচালনা করবে।’

মির্জা ফখরুল ইসলাম বলেন, ‘পদ্মা সেতুর প্রাথমিক ফিজিবিলিটি রিপোর্ট ১৯৯৪-১৯৯৫ সালের দিকে বেগম খালেদা জিয়ার আমলেই শুরু হয়।সে সময় জাপান, ওয়ার্ল্ড ব্যাংক ও এশিয়ান ডেভেলপমেন্ট ব্যাংকের সাথে পদ্মা সেতু নির্মাণের বিষয় নিয়ে আলোচনা হয় এই আলোচনার পরিপ্রেক্ষিতেই ফিজিবিলিটি রিপোর্ট তৈরি হয়। সেই রিপোর্টে প্রাথমিকভাবে পদ্মা সেতুর নির্মাণ ব্যয় আট হাজার কোটি টাকা ধরা হয়েছিল।পদ্মা সেতুর ব্যয় হওয়ার কথা ছিল সাড়ে আট হাজার থেকে ১০ হাজার কোটি টাকা। সে জায়গায় ৩০ হাজার কোটি টাকা ছাড়িয়ে গেছে।এই ৩০ হাজার কোটি টাকা কোথায় কীভাবে ব্যয় হলো? পৃথিবীর কোথাও কোনো সেতুতে এত ব্যয় হয়নি।’

পদ্মা সেতুর উদ্বোধনে বিএনপি যাবে কি-না সাংবাদিকদের এ প্রশ্নের জবাবে মির্জা ফখরুল বলেন, ‘এ প্রশ্নটি করা ভালো হতো ওবায়দুল কাদের সাহেবকে। কারণ তার আওয়ামী লীগের সভানেত্রী বলেছেন, বেগম খালেদা জিয়াকে যদি পদ্মা সেতুতে নিয়ে গিয়ে টুপুস করে ফেলে দেওয়া যায় তাহলে ঠিক হয়। যেখানে একজন বিরোধী দলীয় নেত্রীকে হত্যা করার হুমকি দেওয়া হয় সেই হুমকির মুখে তিনি কীভাবে যাবেন। তাই পদ্মা সেতুর উদ্বোধনীতে তিনি যাবেন এটি মনে করার কোনো কারণ নেই।’

সভায় উপস্থিত ছিলেন, ঠাকুরগাঁও জেলা বিএনপির সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা মো. তৈমুর রহমান, সাধারণ সম্পাদক মির্জা ফয়সাল আমিন সরকার, জেলা মহিলা দলের সভাপতি ফোরাতুন নাহার, সাধারণ সম্পাদক নাজমা পারভীন, সাংগঠনিক সম্পাদক রুবিনা আক্তার প্রমুখ।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ সম্পর্কিত আরো সংবাদ