• বুধবার, ৩০ নভেম্বর ২০২২, ০৮:২৩ অপরাহ্ন

দুধ দিয়ে গোসলের পর এবার সেই কমিটি বাতিলের দাবিতে ঝাড়ু মিছিল

প্রতিবেদকের নাম / ২০ শেয়ার
প্রকাশিত : শনিবার, ৮ অক্টোবর, ২০২২

কিশোরগঞ্জ প্রতিনিধি

দুধ দিয়ে গোসল কাণ্ডের পর উপজেলা ছাত্রলীগের কমিটি বাতিলের দাবিতে কিশোরগঞ্জের পাকুন্দিয়ায় ঝাড়ু মিছিল ও সড়ক অবরোধ করেছে পদবঞ্চিত একাংশের নেতা-কর্মীরা। শনিবার (০৮ অক্টোবর) বেলা সাড়ে ১১টার দিকে উপজেলা পৌরশহর বাজারে ঘণ্টাব্যাপী বিভিন্ন কর্মসূচি পালন করে তারা।

বিক্ষোভ মিছিলটি উপজেলা পরিষদের সামনে থেকে শুরু করে পৌরশহর বাজার প্রদক্ষিণ করে। এ সময় পাকুন্দিয়া-মির্জাপুর, পাকুন্দিয়া-মঠখোলার তিন রাস্তা মোড়ে টায়ার জ্বালিয়ে রাস্তা অবরোধ করেন নেতাকর্মীরা। পরে উপজেলা পরিষদ চত্বরে সংবাদ সম্মেলনের আয়োজন করেন তারা।

জানা গেছে, বুধবার (০৫ অক্টোবর) দীর্ঘ ১২ বছর পর নতুন কমিটি পায় পাকুন্দিয়া উপজেলা ছাত্রলীগ। জেলা ছাত্রলীগের সভাপতি মো. আনোয়ার হোসেন মোল্লা ও সাধারণ সম্পাদক মোহাম্মদ ফয়েজ ওমান খান স্বাক্ষরিত ১৯ সদস্যবিশিষ্ট পাকুন্দিয়া উপজেলা ছাত্রলীগের আংশিক কমিটি ঘোষণা করা হয়। কমিটিতে নাজমুল আলমকে সভাপতি ও মো. তোফায়েল আহমেদকে সাধারণ সম্পাদক করা হয়। আগামী ৩০ দিনের মধ্যে পূর্ণাঙ্গ কমিটি করার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।

কমিটির অন্য সদস্যরা হলেন- সহসভাপতি মো. আরমিন, মো. আবদুল্লাহ আল-আমিন শেখ মিশু, এয়াদুদ জামান সাগর, জিয়াউল হক জনি, মাহবুব আজাদ তন্ময়, অপূর্ব সাহা, আশিকুর রহমান অভিক, মো.রায়হান মিয়া ও মো.বরকত, যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক মো. রবিন, মো. আলমগীর হোসেন বাদশা, মো. সাব্বির হোসেন ও মাহমুদুল হাসান রাজিব, সাংগঠনিক সম্পাদক ফরহাদ আলম ছোটন, আল-জোবায়ের নিবিড়, রাকিব হাসান ভূঁইয়া ও মেহেদী হাসান রুমান।

সেই কমিটি গঠনের পর থেকেই উত্তপ্ত হয়ে ওঠে পদবঞ্চিত নেতাকর্মীরা। এমনকি কমিটির ১ নং সহ-সভাপতি মো. আরমিন আহমেদ দুধ দিয়ে গোসল করে কলঙ্কমুক্ত হয়ে দেশব্যাপী আলোড়ন সৃষ্টি করেন। তার দাবি সে ছাত্রদল থেকে আসা নেতার পেছনে রাজনীতি করতে পারবেন না। তাই তিনি দুধ দিয়ে গোসল করে কলঙ্কমুক্ত হতে চেয়েছেন। আর পদবঞ্চিত একাংশের নেতাকর্মী আজ সেই কমিটি বাতিলের দাবিতে ঘোষণা দিয়ে রাজপথে নেমেছেন

বিক্ষোভ মিছিল শেষে নেতাকর্মীরা পৌরশহর বাজারে পাকুন্দিয়া-মির্জাপুর, পাকুন্দিয়া-মঠখোলা সড়কের তিন রাস্তা মোড়ে টায়ার জ্বালিয়ে রাস্তা অবরোধ করে। পরে উপজেলা চত্বরে সংবাদ সম্মেলনে করে তারা।

সংবাদ সম্মেলনে ছাত্রলীগ নেতা সাকিবুল হাসান মুন্না অভিযোগ করে বলেন, জামাত-শিবির ও ছাত্রদল থেকে ওঠে আসা অছাত্রদের নিয়ে সাবেক এমপি সোহরাব উদ্দিন ও তার ছেলে সাগরের পছন্দের এই কমিটি তারা প্রত্যাখ্যান করেছেন। এই কমিটিকে পাকুন্দিয়ায় অবাঞ্ছিত ঘোষণা করা হলো। বিতর্কিত এই কমিটি বাতিল না হওয়া পর্যন্ত রাজপথে আন্দোলন চলবে। প্রয়োজনে তাদের রাজপথেই মোকাবিলা করা হবে।

চরফরাদি ইউনিয়ন ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি সাদ্দাম হোসেন বলেন, এই কমিটি গঠনের সময় স্থানীয় এমপি ও উপজেলা চেয়ারম্যানের সঙ্গেও কথা বলা হয়নি। যাকে সভাপতি করা হয়েছে তিনি চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্রদলের রাজনীতি করতেন। এছাড়া এই কমিটির অনেকে ছাত্রদল থেকে এসেছেন। বিবাহিত ও ৮ বছরের সন্তানের জনককেও এ কমিটিতে রাখা হয়েছে। তাই এই কমিটি অবিলম্বে বাতিল করতে হবে, তানাহলে লাগাতার কর্মসূচি চলবে।

সংবাদ সম্মেলনে বক্তব্য দেন- পাকুন্দিয়া উপজেলা ছাত্রলীগ নেতা সাকিবুল হাসান মুন্না। এ সময় উপজেলা ছাত্রলীগ নেতা রাকিবুল হাসান হিমেল, রাকিবুল হাসান হৃদয়, সোহেল আহম্মেদ, চরফরাদি ইউনিয়ন ছাত্রলীগের সভাপতি সাদ্দাম হোসেন, পৌর ছাত্রলীগের নেতা নাফিজ আহম্মেদ নাদিম উপস্থিত ছিলেন।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ সম্পর্কিত আরো সংবাদ