• রবিবার, ২৭ নভেম্বর ২০২২, ০৯:১৭ অপরাহ্ন

তেঁতুলতলা মাঠের বিষয়ে আলোচনা করে সিদ্ধান্ত : স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী

আমার কাগজ ডেস্ক: / ৫১ শেয়ার
প্রকাশিত : সোমবার, ২৫ এপ্রিল, ২০২২

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল বলেছেন, রাজধানীর কলাবাগানের তেঁতুলতলা মাঠে থানা হবে কি না, তা আলোচনা করে সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে।

রাজধানীর তেজগাঁও সরকারি বিজ্ঞান কলেজে আজ সোমবার ঈদবস্ত্র বিতরণ অনুষ্ঠান শেষে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে এ কথা বলেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী।

আসাদুজ্জামান খান কামাল বলেন, ‘আমাদের সময়ে যেখানে খেলাধুলা করতাম, আগের সে অবস্থাটা এখন আর নেই। আমাদের পরবর্তী প্রজন্মের জন্য আমরা কষ্ট বোধ করি। মূল কারণ, আমাদের নগরায়ন। আমাদের জায়গা কম। আমরা যা-ই কিছু বলি, গুরুত্বের দিক দিয়ে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর একটা বড় দায়িত্ব থাকে। আমরা যদি আইনশৃঙ্খলা রক্ষা করতে ব্যর্থ হই, তাহলে সবকিছু মুখ থুবড়ে পড়বে। কলাবাগান থানা ভবন দীর্ঘদিনের একটি প্রচেষ্টা। ভাড়া ভবনে থানা পরিচালনা হচ্ছে।’

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আরও বলেন, ‘জেলা প্রশাসন এ জায়গাটি খাসজমি হিসেবে চিহ্নিত করে বরাদ্দ দিয়েছে কলাবাগান থানাকে। সব প্রক্রিয়া শেষে যখন ভবন নির্মাণ করতে যায়, তখন খেলার মাঠের দাবিতে আন্দোলন হচ্ছে। আমাদের মেয়র বলেছেন, এ জায়গা থেকে অন্য জায়গায় সরিয়ে দিতে। আমরা মনে করি, খেলার মাঠে বাচ্চারা খেলাধুলা করবে এটাই স্বাভাবিক এবং খেলার মাঠ যেন থাকে, সেজন্য আমরা মনে করি খেলার মাঠের ব্যবস্থা করতে হবে। মেয়রকে বলেছি, সবাইকে বলেছি, বিকল্প একটা জায়গা খোঁজার জন্য। এটা আমরা পরবর্তী সময়ে আলোচনা করে সিদ্ধান্ত নেব, কী করা যায়।’

তেঁতুলতলা মাঠে থানা ভবন নির্মাণের প্রতিবাদ করায় এবং নির্মাণকাজের ভিডিও ধারণ করায় গতকাল রোববার বেলা ১১টার দিকে স্থানীয় বাসিন্দা সৈয়দা রত্নাকে আটক করে পুলিশ। পরে তাঁর ছেলেকেও ধরে নেওয়া হয়।

মা-ছেলেকে আটকের বিষয়ে জানতে চাইলে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, ‘আমি ঘটনার যতটুকু জেনেছি, তা হচ্ছে—তারা লাইভ ভিডিওতে এসে অনেক কিছু প্রচার করছিল। সেগুলো নাকি একটু অসঙ্গতিপূর্ণ। সেজন্য বারবার নিবৃত্ত করার পরেও আইনশৃঙ্খলা বাহিনী যখন থামাতে পারেনি, তখন তাদের জিজ্ঞাসাবাদ করার জন্য থানায় নিয়েছিল। পরে তাদের ছেড়ে দেওয়া হয়েছে।’

গতকাল মা-ছেলেকে আটকের ঘটনায় দিনভর ব্যাপক সমালোচনা হয়। সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমসহ গণমাধ্যমে সমালোচনার ঝড় ওঠে। পরে বিক্ষোভের মুখে রোববার দিবাগত রাত সাড়ে ১২টার দিকে মুচলেকা নিয়ে তাঁদের ছেড়ে দেওয়া হয়।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ সম্পর্কিত আরো সংবাদ