• রবিবার, ০২ অক্টোবর ২০২২, ০৩:৫১ অপরাহ্ন

জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কারের জন্য দরখাস্ত আহ্বান

বিনোদন ডেস্ক: / ১৩ শেয়ার
প্রকাশিত : বুধবার, ২১ সেপ্টেম্বর, ২০২২

‘জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার ২০২১’-এর জন্য সিনেমার প্রযোজকদের কাছ থেকে দরখাস্ত আহ্বান করা হয়েছে। মঙ্গলবার তথ্য অধিদপ্তর থেকে পাঠানো এক বিজ্ঞপ্তির মাধ্যমে এ কথা জানানো হয়েছে। সেখানে বলা হয়েছে, আগামী ২২ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত আবেদন জমা দেওয়া যাবে।

বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়েছে, সিনেমার প্রযোজকদের নির্ধারিত ছকে আবেদন করতে হবে। আবেদনের ফরম/ছক বাংলাদেশ চলচ্চিত্র সেন্সর বোর্ড থেকে সংগ্রহ করা যাবে। আবেদনের ফরম সেন্সর বোর্ডের ওয়েবসাইট www.bfcb.gov.bd থেকে ডাউনলোড করেও ব্যবহার করা যাবে।

আরও বলা হয়েছে, প্রত্যেক আবেদনপত্রের সঙ্গে সংশ্লিষ্ট চলচ্চিত্রের কপি ডিভিডি/পেনড্রাইভে করে জমা দিতে হবে। পুরস্কারের জন্য প্রস্তাবিত শিল্পী/কলাকুশলীদের তিন কপি পিপি সাইজ ছবিসহ জীবন বৃত্তান্ত (বাংলা), জাতীয় পরিচয়পত্রের সত্যায়িত ফটোকপি/পাসপোর্টের সত্যায়িত কপি (প্রযোজ্য ক্ষেত্রে)/ শিশুশিল্পীদের ক্ষেত্রে জন্মনিবন্ধন সনদের সত্যায়িত ফটোকপি আবেদনপত্রের সঙ্গে জমা দিতে হবে।

প্রজ্ঞাপন থেকে জানা গেছে, বরাবরের মতো এবারও ২৮টি ক্যাটাগরিতে জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার দেওয়া হবে। সেগুলো হলো- আজীবন সম্মাননা, শ্রেষ্ঠ চলচ্চিত্র, শ্রেষ্ঠ স্বল্পদৈর্ঘ্য চলচ্চিত্র, শ্রেষ্ঠ প্রমাণ্য চলচ্চিত্র, শ্রেষ্ঠ পরিচালক, শ্রেষ্ঠ অভিনেতা (প্রধান চরিত্র), শ্রেষ্ঠ অভিনেত্রী (প্রধান চরিত্র), শ্রেষ্ঠ অভিনেতা (পার্শ্ব চরিত্র), শ্রেষ্ঠ অভিনেত্রী (পার্শ্ব চরিত্র), শ্রেষ্ঠ খল অভিনয়শিল্পী, শ্রেষ্ঠ কৌতুক অভিনয়শিল্পী, শ্রেষ্ঠ শিশুশিল্পী, শিশুশিল্পী শাখায় বিশেষ পুরস্কার, শ্রেষ্ঠ সংগীত পরিচালক, শ্রেষ্ঠ নৃত্য পরিচালক, শ্রেষ্ঠ গায়ক, শ্রেষ্ঠ গায়িকা, শ্রেষ্ঠ গীতিকার, শ্রেষ্ঠ সুরকার, শ্রেষ্ঠ কাহিনিকার, শ্রেষ্ঠ চিত্রনাট্যকার, শ্রেষ্ঠ সংলাপ রচয়িতা, শ্রেষ্ঠ সম্পাদক, শ্রেষ্ঠ শিল্প নির্দেশক, শ্রেষ্ঠ চিত্রগ্রাহক, শ্রেষ্ঠ শব্দগ্রাহক, শ্রেষ্ঠ পোশাক ও সাজসজ্জা এবং শ্রেষ্ঠ মেকআপম্যান।

জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার সংক্রান্ত নীতিমালায় বলা আছে, কেবল বাংলাদেশি নাগরিকরাই এ পুরস্কারের জন্য বিবেচিত হবেন। যৌথ প্রযোজনার চলচ্চিত্র পুরস্কারের জন্য বিবেচিত হবে। তবে ওই সিনেমার বিদেশি শিল্পী এবং কলাকুশলীরা পুরস্কার পাবেন না।

এছাড়া জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কারের জন্য বিবেচনাযোগ্য সিনেমাটিকে অবশ্যই চলচ্চিত্র সেন্সর বোর্ডের সনদপ্রাপ্ত এবং ২০২১ সালে প্রেক্ষাগৃহে মুক্তিপ্রাপ্ত হতে হবে। স্বল্পদৈর্ঘ্য এবং প্রমাণ্য চলচ্চিত্রের ক্ষেত্রে প্রেক্ষাগৃহে মুক্তির কোনো বাধ্যবাধকতা নেই। তবে সেটিকে ২০২১ সালে সেন্সর সনদপ্রাপ্ত হতে হবে।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ সম্পর্কিত আরো সংবাদ