• সোমবার, ২৮ নভেম্বর ২০২২, ০১:৩৩ পূর্বাহ্ন

উইঘুর মুসলিম নির্যাতন, জাতিসংঘে চীন বিরোধী প্রস্তাবে ভোট দেয়নি ভারত

আন্তর্জাতিক ডেস্কঃ / ১৭ শেয়ার
প্রকাশিত : শনিবার, ৮ অক্টোবর, ২০২২

চীনের জিনজিয়াং অঞ্চলে মানবাধিকার পরিস্থিতি নিয়ে বিতর্ক অনুষ্ঠিত করার বিষয়ে জাতিসংঘের মানবাধিকার কাউন্সিলে একটি খসড়া প্রস্তাবে বৃহস্পতিবার ভোট দেওয়া থেকে বিরত ছিল ভারত।

মানবাধিকার গোষ্ঠীগুলো কয়েক বছর ধরে সম্পদ-সমৃদ্ধ উত্তর-পশ্চিম চীনা প্রদেশে যা ঘটছে তা নিয়ে শঙ্কা প্রকাশ করে আসছে। তাদের আভিযোগ, বেইজিং ‘পুনঃশিক্ষা’র নামে ইচ্ছার বিরুদ্ধে দশ লাখের বেশি উইঘুরকে আটক করে রেখেছে।

চীনের জিনজিয়াং উইঘুর স্বায়ত্তশাসিত অঞ্চলে মানবাধিকার পরিস্থিতি নিয়ে একটি বিতর্কের খসড়া প্রস্তাবটির পক্ষে কাউন্সিলভুক্ত ৪৭ সদস্যের মধ্য ১৭ সদস্য পক্ষে ভোট দেয়। কিন্তু চীনসহ ১৯ সদস্য এর বিপক্ষে ভোট দেয়। ভোটের সময় ভারত, ব্রাজিল, মেক্সিকো এবং ইউক্রেনসহ ১১ সদস্য বিরত ছিল।

খসড়া রেজ্যুলিউশনটি কানাডা, ডেনমার্ক, ফিনল্যান্ড, আইসল্যান্ড, নরওয়ে, সুইডেন, যুক্তরাজ্য এবং মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের সমন্বয়ে গঠিত একটি কোর গ্রুপ দ্বারা উপস্থাপিত হয়েছিল এবং তুরস্কসহ বিভিন্ন দেশ কো-স্পন্সর হয়েছিল।

হিউম্যান রাইটস ওয়াচের চীনের পরিচালক সোফি রিচার্ডসন এক বিবৃতিতে বলেছেন, তার ইতিহাসে প্রথমবারের মতো জাতিসংঘের শীর্ষ মানবাধিকার সংস্থা চীনের জিনজিয়াং অঞ্চলে মানবাধিকার পরিস্থিতি নিয়ে বিতর্কের একটি প্রস্তাব বিবেচনা করেছে।

বিষয়টি নিয়ে ভারত সরকারের তরফ থেকে জানানো হয়, সব ধরনের মানবাধিকারের পক্ষে দাঁড়ানোর ক্ষেত্রে ভারত প্রতিশ্রুতিবদ্ধ। তবে ভারত মনে করে কোনো নির্দিষ্ট দেশের বিরুদ্ধে প্রস্তাব আনা ঠিক নয়। এর জন্য দরকার নিরন্তর সদর্থক আলোচনা। শিনজিয়াংয়ের উইঘুর স্বশাসিত অঞ্চলে মানবাধিকার যাতে লঙ্ঘিত না হয়, তা দেখা উচিত। এ বিষয়ে সংশ্লিষ্ট পক্ষ যথাযথ ব্যবস্থা নেবে বলে আশা করেন তারা।

রিচার্ডসন উল্লেখ করেছেন, জাতিসংঘের প্রাক্তন মানবাধিকার হাইকমিশনার মিশেল ব্যাচেলেটের সাম্প্রতিক প্রতিবেদনে ‘মানবতার বিরুদ্ধে চীনের অপরাধের দাগ কোন কিছুই মুছে ফেলবে না’।

২০১৭ সালের শেষের দিক থেকে উইঘুর এবং চীনের অন্যান্য প্রধানত মুসলিম সম্প্রদায়ের বিরুদ্ধে মানবাধিকার লঙ্ঘনের গুরুতর অভিযোগগুলো জাতিসংঘের মানবাধিকার অফিস এবং জাতিসংঘের মানবাধিকার ব্যবস্থার নজরে আনা হয়েছিল।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ সম্পর্কিত আরো সংবাদ