• রবিবার, ২৯ মে ২০২২, ০৬:১৩ অপরাহ্ন

আস্থার সংকট কাটিয়ে গ্রহণযোগ্য নির্বাচনের আশাবাদ সিইসির

প্রতিবেদকের নাম / ২৯ শেয়ার
প্রকাশিত : সোমবার, ১৮ এপ্রিল, ২০২২

প্রধান নির্বাচন কমিশনার (সিইসি) কাজী হাবিবুল আউয়াল বলেছেন, ‘আস্থার সংকট যদি থেকে থাকে, তাহলে তা কাটিয়ে উঠে ঐকমত্যের ভিত্তিতে একটি গ্রহণযোগ্য নির্বাচন যেমন আপনারা আশা করেন, আমরাও আশা করি।’

রাজধানীর আগারগাঁওয়ে নির্বাচন ভবনে আজ সোমবার ইলেক্ট্রনিক মিডিয়ার প্রতিনিধিদের সঙ্গে আয়োজিত সংলাপে এ কথা বলেন সিইসি। এ সংলাপে উপস্থিত থাকতে মোট ৩৮ জনকে আমন্ত্রণপত্র পাঠানো হয়েছিল বলে জানিয়েছেন ইসির যুগ্ম সচিব এস এম আসাদুজ্জামান।

দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনের কর্মপরিকল্পনা তৈরির লক্ষ্যে ধারাবাহিকভাবে নির্বাচন কমিশন এ সংলাপ করছে।

সংলাপে সিইসি আরও বলেন, ‘সবার মতামত নিয়ে একটা ভালো নির্বাচন করতে ধারাবাহিকভাবে এ সংলাপ চলবে।’

এ সময় ইলেক্ট্রনিক মিডিয়ার প্রতিনিধিরা রাজনৈতিক দলগুলোর সঙ্গে আস্থার সম্পর্ক নিশ্চিত করার পাশাপাশি নিরপেক্ষতা বজায় রাখার তাগিদ দেন।

সংলাপে অংশ নেন এনটিভির বার্তা প্রধান জহিরুল আলম, এটিএন বাংলার প্রধান নির্বাহী সম্পাদক জ ই মামুন, চ্যানেল আইয়ের প্রধান বার্তা সম্পাদক জাহিদ নেওয়াজ খান, আরটিভির সিইও সৈয়দ আশিক রহমান, একুশে টিভির হেড অব নিউজ রাশেদ চৌধুরী, বাংলাভিশনের হেড অব নিউজ আব্দুল হাই সিদ্দিক, মাইটিভির হেড অব নিউজ শেখ নাজমুল হক সৈকত, সময় টিভির হেড অব নিউজ মুজতবা দানিশ, ইন্ডিপেন্ডেন্ট টিভির চিফ নিউজ এডিটর আশিস সৈকত, মাছরাঙ্গা টিভির হেড অব নিউজ রেজোয়ানুল হক রাজা, একাত্তর টিভি প্রধান সম্পাদক ও ব্যবস্থাপনা পরিচালক মোজাম্মেল হক, চ্যানেল টোয়েন্টিফোরের নির্বাহী পরিচালক তালাত মামুন, দেশ টিভির চিফ নিউজ এডিটর বোরহানুল হক সম্রাট, নিউজ২৪-এর এক্সিকিউটিভ এডিটর রাহুল রাহা, ডিবিসি নিউজের সিইও মঞ্জুরুল ইসলাম, বাংলা ট্রিবিউন-এর বার্তা প্রধান মাসুদ কামাল, গ্লোবাল টিভির এডিটর সৈয়দ ইশতিয়াক রেজা, সিনিয়র সাংবাদিক মঞ্জুরুল আহসান বুলবুল, সাংবাদিক মোস্তফা ফিরোজ, নাগরিক টিভির হেড অব নিউজ দীপ আজাদ, বাংলাদেশ সংবাদ সংস্থার ব্যবস্থাপনা পরিচালক ও প্রধান সম্পাদক আবুল কালাম আজাদ, বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকমের প্রধান সম্পাদক তৌফিক ইমরোজী খালিদী, যমুনা টিভির প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা ফাহিম আহমেদ, স্পাইস টিভির এডিটোরিয়াল হেড তুষার আব্দুল্লাহ, জাগোনিউজের ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক কে এম জিয়াউল হক প্রমুখ।

এর আগে প্রিন্ট মিডিয়ার সম্পাদক ও জ্যেষ্ঠ সাংবাদিকদের সঙ্গে গত ৬ এপ্রিল সংলাপে বসেছিল ইসি। সংলাপে তাঁরা ইসিকে সব বিতর্কের ঊর্ধ্বে দলগুলোর আস্থা অর্জনের পরামর্শ দেন। এ ছাড়া নির্বাচনে জেলা প্রশাসকদের পরিবর্তে ইসির নিজস্ব কর্মকর্তাদের রিটার্নিং কর্মকর্তা হিসেবে নিয়োগ এবং বিভাগভিত্তিক একাধিক দিনে নির্বাচন অনুষ্ঠানের সুপারিশও করেন তাঁরা।

কাজী হাবিবুল আউয়ালের নেতৃত্বাধীন বর্তমান কমিশন দায়িত্ব নিয়ে কমিশন সভার আগেই সংলাপের আয়োজন করে। এর আগে শিক্ষাবিদ ও বিশিষ্ট নাগরিকদের সঙ্গে দুই দফায় সংলাপ করেছে ইসি।

আগের সংলাপগুলোতে আমন্ত্রিতরা ইসির সঙ্গে বৈঠকে বসে ইলেকট্রনিক ভোটিং মেশিনের (ইভিএম) সীমিত ব্যবহার, নির্বাচনের সময় আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীকে নিজেদের অধীনে আনা, দলগুলোর আস্থা অর্জনসহ বিভিন্ন প্রস্তাব দেন।

জানা গেছে, এরপর নির্বাচন কমিশন নারী নেত্রীদের সঙ্গে বসতে পারে। সবশেষে নিবন্ধিত রাজনৈতিক দলগুলোর সঙ্গে বসার কথা রয়েছে কমিশনের।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ সম্পর্কিত আরো সংবাদ