• শুক্রবার, ০১ জুলাই ২০২২, ০১:১০ পূর্বাহ্ন

আরো ৪ কনটেইনারে রাসায়নিকের অস্তিত্ব পেয়েছে সেনাবাহিনী

প্রতিবেদকের নাম / ৩৮ শেয়ার
প্রকাশিত : সোমবার, ৬ জুন, ২০২২

চট্টগ্রাম প্রতিনিধি
চট্টগ্রামের সীতাকুণ্ডের বিএম কনটেইনার ডিপোতে থাকা আরও চারটি কনটেইনারে রাসায়নিক রয়েছে বলে প্রাথমিকভাবে নিশ্চিত হয়েছে সেনাবাহিনী।

আজ সোমবার দুপুর ১২টার দিকে সেনাবাহিনীর ২৪ পদাতিক ডিভিশনের ১৮ ব্রিগেডের অধিনায়ক লেফটেন্যান্ট কর্নেল আরিফুল ইসলাম দুর্ঘটনাস্থলে সাংবাদিকদের এ তথ্য জানান।

আরিফুল ইসলাম বলেন, সেনাবাহিনী গতকাল রোববার থেকে দুর্ঘটনাস্থলে কাজ করছে। আগুন পুরোপুরি নিয়ন্ত্রণে আনার জন্য ফায়ার সার্ভিসকে সহায়তা করা হচ্ছে।

আরিফুল ইসলাম আরও বলেন, ‘প্রাথমিকভাবে আমরা জানতে পেরেছি, আরও চারটি কনটেইনারে রাসায়নিক রয়েছে। যেসব কনটেইনারে ধোঁয়া ও আগুন দেখা যাচ্ছে, তা বন্ধের চেষ্টা চলছে। আগুন পুরোপুরি নিয়ন্ত্রণে আসার পর বাকি কাজ করা হবে।’

পাঁচ-ছয়টি কনটেইনারে এখনো দাউ দাউ করে আগুন জ্বলছে। আকাশে উড়ছে বিষাক্ত রাসায়নিক ও পুড়ে যাওয়া কনটেইনার থেকে বের হওয়া ধোঁয়া। ছবি আজ সোমবার সকাল সাড়ে ১০টার দিকে তোলা

চারটি কনটেইনারেই হাইড্রোজেন পার-অক্সাইড রয়েছে কি না, প্রশ্ন করা হলে আরিফুল ইসলাম বলেন, ‘হতে পারে, আবার অন্য রাসায়নিকও থাকতে পারে।’

কনটেইনার থেকে ধোঁয়া বের হলে আতঙ্কিত না হওয়ার অনুরোধ জানান আরিফুল ইসলাম। তিনি বলেন, ‘যেসব কনটেইনার থেকে ধোঁয়া বের হচ্ছে, সেগুলোর ভেতরে কাপড় ছিল। পানি ছিটানোর পর আগুন নিভে কাপড় থেকে ধোঁয়া বের হচ্ছে।’

এক প্রশ্নের জবাবে আরিফুল ইসলাম বলেন, সেনাবাহিনীর সদস্যরা কনটেইনার ডিপোর আশপাশের বিভিন্ন নালায় বালু দিয়ে বাঁধ দিয়েছেন, যাতে রাসায়নিক সমুদ্রে গিয়ে না পড়ে।

গত শনিবার রাতে সীতাকুণ্ডের সোনাইছড়ি ইউনিয়নের বিএম কনটেইনার ডিপোতে আগুন লাগার পর বিস্ফোরণ ঘটে। এতে ফায়ার সার্ভিসের ৯ সদস্যসহ ৪৯ জন নিহত হন। আহত দুই শতাধিক। তাঁরা ঢাকা ও চট্টগ্রামের চিকিৎসা নিচ্ছেন।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ সম্পর্কিত আরো সংবাদ