• বৃহস্পতিবার, ০১ ডিসেম্বর ২০২২, ০২:৫০ পূর্বাহ্ন

আজমল স্ট্রোকে মারা গেছেন, সংঘর্ষে নয় : ওবায়দুল কাদের

আমার কাগজ ডেস্ক: / ৮ শেয়ার
প্রকাশিত : মঙ্গলবার, ১৫ নভেম্বর, ২০২২

সুনামগঞ্জের দিরাই উপজেলায় আজমল হোসেনের মৃত্যুর বিষয়ে আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহণ ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল বলেছেন, ‘আজমল হোসেন স্ট্রোক করে মারা গেছেন। তাঁর মৃত্যুর সঙ্গে আমাদের দলের সম্মেলনের কোনো সম্পর্ক নেই।’

রাজধানীর বনানীতে আজ মঙ্গলবার বাংলাদেশ সড়ক পরিবহণ কর্তৃপক্ষের (বিআরটিএ) কার্যালয়ে জাতীয় সড়ক নিরাপত্তা কাউন্সিলের বৈঠকে এসব কথা বলেন আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক।

সঠিক তথ্য নিয়ে সংবাদ পরিবেশনের জন্য সাংবাদিকদের উদ্দেশে ওবায়দুল কাদের বলেন, ‘সাংবাদিকরা পুরোপুরি অবহিত না হয়ে এভাবে যদি নিউজ করেন। আমাদের একটা উপজেলা সম্মেলনকে কেন্দ্র করে ওখানে ছোটখাটো একটা ঘটনা ঘটেছিল। পরবর্তী সময়ে সম্মেলন সুন্দরভাবে শেষ হয়েছে। সকালে পত্র-পত্রিকায় দেখলাম একজন মারা গেছে। এটা মৃত হওয়ার সুবাদে প্রথম পাতায় উঠে আসছে। সম্মেলনের আশপাশে কোথাও এ ধরনের ঘটনা ঘটেনি।’

ওবায়দুল কাদের বলেন, ‘আজমল হোসেন দুবাইতে ছিলেন। তিনি দেশে এসেছিলেন। তাঁর বাড়ি সম্মেলনস্থল থেকে অনেক দূরে। সে তাঁর বাড়িতে ছিল। সম্মেলনে ঘটনা ঘটেছে একটায়। তিনটা বাজে ওর পরিবার ওকে হাসপাতালে নিয়ে গেছে। তাঁর মৃত্যুর সঙ্গে সম্মেলনের কোনো সম্পর্ক নেই।’

সুনামগঞ্জের দিরাই উপজেলা আওয়ামী লীগের ত্রিবার্ষিক সম্মেলনকে কেন্দ্র করে বিএডিসি মাঠে হামলার সময় চেয়ার মাথায় নিয়ে আত্মরক্ষার চেষ্টায় কেন্দ্রীয় নেতারা। ছবি : এনটিভি
সাংবাদিকদের উদ্দেশ করে ওবায়দুল কাদের আরও বলেন, ‘বিরোধী দল সমাবেশস্থলে চার দিন আগে আসতেছে। তারা লঞ্চে আসতেছে, নৌকায় আসতেছে, হেঁটেও আসতেছে। এগুলো আপনারা নিউজ করছেন। এটা আপনাদের ইচ্ছা। পত্রিকার পলিসির ব্যাপার। কিন্তু আমাদের সম্পর্কে মিথ্যা খবর দেওয়া থেকে বিরত থাকবেন। এটা আমার অনুরোধ। ইটস এ ফলস (মিথ্যা)। এটা ভুল।’

এর আগে গতকাল সোমবার সুনামগঞ্জের দিরাই উপজেলা আওয়ামী লীগের ত্রিবার্ষিক সম্মেলনে সংঘর্ষ হয়। এতে আজমল হোসেন আহত হন বলে প্রত্যক্ষদর্শীরা জানিয়েছেন। আজমলের পরিবারের সদস্যরা বলেন, সমাবেশস্থলে সংঘর্ষ চলাকালে তাঁর পিঠে ঢিল লাগে। এরপর তিনি উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে গেলে অনেকের ভিড়ে চিকিৎসা নিতে পারেননি। বাসায় চলে আসেন। পরে তিনি অস্থিরবোধ করতে থাকলে বেলা সাড়ে তিনটার দিকে তাঁকে আবার উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নেওয়া হয়। সেখানে চিকিৎসক তাঁকে মৃত ঘোষণা করেন।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ সম্পর্কিত আরো সংবাদ